BREAKING NEWS

১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রাস্তায় চুড়ি পরা মহিলার কাটা হাত! তীব্র চাঞ্চল্য বালুরঘাটে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 17, 2017 1:43 pm|    Updated: September 19, 2019 11:35 am

Panic burst as chopped hand recovered beside road in Balurghat

নিজস্ব সংবাদদাতা, বালুরঘাট: এ যেন ইসমাইল শ্রফের ‘তরকিব’-এর প্লট। তবে জলাশয় নয়, বালুরঘাটের রাস্তায়। পড়ে রয়েছে মহিলার কাটা হাত। আর সেই কাটা হাত ঘিরেই তুমুল শোরগোল ছড়াল বালুরঘাট থানার কামারপাড়া এলাকায়। স্থানীয় বাসিন্দারা সেই হাত দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ গিয়ে সেই হাত উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

একটি কাটা হাত উদ্ধারকে ঘিরেই তরকিব সিনেমার প্লট তৈরি হয়েছে। এক ধোপা হাতটি দেখতে পাওয়ার পর সেটি কার হাত এবং কীভাবে সেখানে এল, তা নিয়েই আবর্তিত হয়েছে গোটা সিনেমার গল্প। শেষে সিবিআই অফিসারের ভূমিকায় নানা পাটেকর রহস্য ভেদ করেন। যৌন নির্যাতনের পর সিনেমায় রোশনি নামের তরুণীকে খুন করে টুকরো টুকরো করে জলাশয়ে ফেলে দেওয়া হয়। রবিবার সাতসকালে বালুরঘাট থানার কামারপাড়া সেতুতে ওঠার আগে রাস্তায় কাটা হাত পড়ে থাকতে দেখে তরকিব-এর এই গল্প মনে পড়ে গিয়েছিল সিনেমাপ্রেমীদের। কিন্তু কোথা থেকে এল এই হাত। কারই বা হাত? খুন বা দুর্ঘটনা হলে দেহের বাকি অংশ কোথায়? এরকম হাজারো প্রশ্ন তখনও কামারপাড়ার চায়ের দোকান থেকে মাছের বাজার সর্বত্র। রহস্য তখনও পুরোমাত্রায়। কয়েকটি চুড়ি পরা থাকায় এটা পরিষ্কার হয়, হাতটি কোনও মহিলার। কিন্তু রহসে্যর জট কাটেনি বেলা পর্যন্ত। তবে ওই এলাকার কয়েকজন জানান, গভীর রাতে ওই জায়গাতেই একটি পথ দুর্ঘটনা ঘটে। সেই দুর্ঘটনায় এক মহিলার হাত কাটা যায় বলেও খবর ছড়ায়। কিন্তু পুলিশ তখনও নিশ্চিত করতে পারেনি।

পরে অবশ্য সেই দুর্ঘটনার সূত্রেই রহস্যের জট খোলে। ওই দুর্ঘটনার সূত্র ধরেই তদন্ত শুরু করে পুলিশ। খোঁজ শুরু হয় হাসপাতালে। এরপর বালুরঘাট হাসপাতাল থেকে জানানো হয়, শনিবার গভীর রাতে হাসপাতালে এক মহিলাকে ভর্তি করা হয়। ওই মহিলার নাম পিঙ্কি সরকার রবিদাস (২৬)। বাড়ি হিলি থানার তিওড়-এর সাহাপুরে। ওই রাতে দুর্ঘটনায় তাঁর হাত কাটা যায়। কিন্তু রাতের অন্ধকারে কাটা হাত খুঁজে পাওয়া যায়নি, বা ঘটনার আকস্মিকতায় কাটা হাত খোঁজার চেয়েও আগে হাসপাতালে পাঠানোই বেশি জরুরি বলে মনে করায় হাতটি নেওয়া হয়নি। সেই কারণেই হাতটা রাতে রাস্তাতেই পড়ে ছিল। সকালে প্রাতভ্রমণকারীরা দেখতে পাওয়ার পরই এলাকা জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়ায়। কামারপাড়া সেতুর ওই এলাকার বাসিন্দাদের কয়েকজন জানিয়েছেন, বালুরঘাটের দিক থেকে একটি টোটোয় করে কয়েকজন মহিলা যাত্রী যাচ্ছিলেন। উল্টো দিক থেকে আসা একটি পিক ভ্যানের সঙ্গে ধাক্কা লাগে ওই টোটোর। তাতেই ওই মহিলার হাত কাটা পড়ে। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদিকে হাসপাতাল সূত্রে খবর, ওই মহিলার কাটা হাত আর জোড়া লাগানো সম্ভব নয়। পুলিশ হাতটিকে আপাতত নিজেদের জিম্মায় রেখেছে। পরিবার ও চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলার পর সেটি মাটিতে পুঁতে দেওয়া হতে পারে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে