BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

মুখ পুড়ল মুকুলের, ফোনে আড়ি পাতার মামলা খারিজ দিল্লি হাই কোর্টের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 13, 2017 10:22 am|    Updated: September 19, 2019 4:24 pm

An Images

দেবশ্রী সিনহা, প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফোনে আড়ি পাতা সংক্রান্ত মামলায় আদালতে মুখ পুড়ল মুকুল রায়ের। রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তাঁর ফোনে আড়ি পাতার অভিযোগ খারিজ করে দিল দিল্লি হাই কোর্ট। তবে বিচারপতি বিভু বাখরু বলেছেন, ভবিষ্যতে যদি তাঁর ফোনে আড়ি পাতার জোরালো প্রমাণ মেলে, তাহলে ফের আদালতে দ্বারস্থ পারবেন মুকুল রায়।

[মুসলিম স্বাস্থ্যকর্মীদের গুনতির নির্দেশ, বিতর্কে রাজস্থানের বিজেপি সরকার]

রাজ্য রাজনীতিতে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের ‘নম্বর টু’  হিসেবেই পরিচিত ছিলেন মুকুল রায়। কিন্তু, সারদাকাণ্ডে সিবিআই দপ্তরের হাজিরাকে কেন্দ্র করে তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর দূরত্ব বেড়েছিল। মাঝে অবশ্য সেই দুরত্ব কিছুটা কমেছিল। মুকুল রায় দলের সর্বভারতী সহ-সভাপতিও করেছিলেন মমতা। যদিও দলে তাঁর আগের সেই দাপট ছিল না। কোণঠাসা মুকুল একসময়ে বিজেপির সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বাড়াতে শুরু করেন। এরপরই ধীরে ধীরে মুকুল রায়কে দল বিচ্ছিন্ন করে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয় তৃণমূলের অন্দরে। দীর্ঘ টালবাহানার পর, নভেম্বরে দিল্লি গিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে গেরুয়াশিবিরে যোগ দেন মুকুল। এখন তিনি পুরোদস্তুর বিজেপি নেতা। রাজ্যসভার সাংসদ পদ থেকেও ইস্তফা দিয়েছেন।

[AK47 হাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি বিজেপি নেতার, বিতর্ক তুঙ্গে]

বিজেপি নেতা মুকুল রায় রাজনৈতিক মঞ্চ থেকে তৃণমূলকে যেমন লাগাতার আক্রমণ করে চলেছেন, তেমনি রাজ্য পুলিশের বিরুদ্ধে তাঁর ফোনে আড়ি পাতার অভিযোগে দিল্লি হাই কোর্টে মামলাও করেছিলেন। মুকুল রায়ের অভিযোগ ছিল, এ রাজ্যে তাঁর গতিবিধির উপর নজরদারি চালাত স্থানীয় থানার পুলিশ। আড়ি পাতা হত ফোনেও। প্রাক্তন এই প্রাক্তন তৃণমূল নেতা চেয়েছিলেন, আদালতের নির্দেশে ঘটনার সিবিআই তদন্ত হোক। কিন্তু, সিবিআই তদন্ত তো দুর অস্ত, বুধবার মুকুল রায়ের অভিযোগই খারিজ করে দিল দিল্লি হাই কোর্ট।

[পুলিশ ঘুষ দিয়েছে নির্ভয়ার মা-বাবাকে, বিস্ফোরক অভিযোগ আইনজীবীর]

মামলার শুনানি চলাকালীন মুকুলের রায়ের ফোনে আড়ি পাতা নিয়ে কেন্দ্র ও রাজ্যকে হলফনামা পেশের নির্দেশ দিয়েছিল দিল্লি হাই কোর্ট। হলফনামায় কেন্দ্র ও রাজ্য উভয়ই জানিয়ে দেয়, মুকুলের রায়ে ফোন গোপনে আড়ি পাতা হচ্ছে না। সেই হলফনামার ভিত্তিতেই বুধবার মামলাটি খারিজ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন দিল্লি হাই কোর্টের বিচারপতি বিভু বাখরু। তবে তিনি জানিয়েছে, ভবিষ্যতে যদি ফোনে আড়ি পাতার জোরালো প্রমাণ পান, তাহলে ফের আদালতের দ্বারস্থ হতে পারবেন মুকুল রায়।

[রাম সেতু কি মানুষেরই তৈরি? নয়া ছবি ঘিরে বাড়ছে জল্পনা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement