Advertisement
Advertisement
Alipurduar

প্রেমের গল্প ফেঁদে লিভ ইন, প্রেমিকার কাছে আগ্নেয়াস্ত্র লুকনো অস্ত্র! ফাঁস যুগলের কীর্তি

বড়সড় নাশকতার ছক ছিল বলে মনে করছে পুলিশ।

Police arrest couple with firearm in Alipurduar
Published by: Subhankar Patra
  • Posted:June 18, 2024 4:07 pm
  • Updated:June 18, 2024 4:07 pm

রাজকুমার, আলিপুরদুয়ার: বাড়িতে বেআইনি অস্ত্র রাখার অভিযোগে যুগলকে গ্রেপ্তার করল আলিপুরদুয়ার পুলিশ। অভিযুক্তদের থেকে আধুনিক ৯ এমএম পিস্তল ও ৫ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করেছে অপরাধ দমন শাখা। আলিপুরদুয়ার ১ নম্বর অসম গেটের কাছে প্রেমিকার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তাঁদের।  বাড়িতে লুকিয়ে অস্ত্র রেখেছিল এই যুগল, তা জানাজানি হতে অবাক প্রতিবেশীরা। স্থানীয়দের দাবি, তাঁরা ঘুণাক্ষরেও কিছু টের পাননি। ঘটনার পর ব্যাপক চাঞ্চল্য এলাকায়। পুলিশের প্রশংসার পাশাপাশি, এর পিছনে কোনও বড়চক্র জড়িত থাকলে তাদেরও গ্রেপ্তারের দাবি তুলেছেন বাসিন্দারা।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত যুবকের নাম মনোজ বন্দ্যোপাধ্যায় ওরফে ডেভিড, বয়স ২৪। প্রেমিকার নাম লক্ষ্মী দাস। ধৃত যুবক আলিপুরদুয়ার শহরের বাবুপাড়ার বাসিন্দা। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, লক্ষ্মীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল মনোজের। কিন্তু বাড়ি থেকে সেই সম্পর্ক মেনে না নেওয়ায় আলিপুরদুয়ারের (Alipurduar) ১ নম্বর অসম গেটের কাছে যুবকের সঙ্গেই থাকছিলেন যুবতী। স্থানীয়দের কাছে যুগল দাবি করেছিলেন, তাঁরা বিবাহিত। 

Advertisement

[আরও পড়ুন: জমি দখলের টাকা পাচার হত ইটভাটার নামেও! শাহজাহানের বিরুদ্ধে চার্জশিটে দাবি ইডির]

পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তাঁদের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আগ্নেয়াস্ত্র (FireArms) উদ্ধার করে। পুলিশের অনুমান, বড়সড় অপরাধ সংগঠিত করার জন্য ওই অস্ত্র মজুত করা হয়েছিল। ধৃত যুবক একাধিক পরিচয়ে ঘুরে বেড়ায় বলে দাবি পুলিশের। আরও দাবি, অপরাধ চক্রের সঙ্গে যোগ রয়েছে ধৃত মনোজের। তবে ধৃত যুবতী লক্ষ্মীর মায়ের দাবি, “ওই ছেলের সঙ্গে মেয়ের সম্পর্ক আমরা মানতে পারিনি। ওদের সঙ্গে আমাদের কোনও যোগাযোগ নেই। ওই ছেলেই আমার মেয়েকে ফাঁসিয়েছে।” স্থানীয় বাসিন্দা নারায়ণচন্দ্র দেবনাথ বলেন, ” এখানে আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে বলে আমরা কিছুই বুঝতে পারিনি। পুলিশ আসার পর শুনতে পাই, বাড়িতে বন্দুক ছিল। পুলিশ সেটা উদ্ধার করেছে, খুব ভালো। তবে এই ঘটনায় আরও কেউ যুক্ত কি না,  তা খুঁজে বার করুক পুলিশ। তাহলে আমরা শান্তিতে থাকতে পারব।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: মাঝ জুনেও বঙ্গে প্রবেশ করেনি বর্ষা! কী বলছে হাওয়া অফিস?]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ