BREAKING NEWS

২ মাঘ  ১৪২৭  শনিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সিসিটিভিতেই লুকিয়ে সূত্র, শালিমারে তৃণমূল নেতা খুনে গ্রেপ্তার ৩

Published by: Sayani Sen |    Posted: December 30, 2020 4:16 pm|    Updated: December 30, 2020 4:16 pm

An Images

অরিজিৎ গুপ্ত, হাওড়া: সূত্র সিসিটিভি ফুটেজ। আর তার মাধ্যমে শালিমারে (Shalimar) তৃণমূল নেতা খুনে তিনজনকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ। ধৃতেরা হল দেবেন্দ্র মিশ্র, চন্দন চৌধুরী, বিকাশ সিং ওরফে ভিকি। পুলিশ সূত্রে খবর, সিন্ডিকেট বিবাদের জেরে তৃণমূল নেতাকে খুন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেল পাঁচটা নাগাদ ধর্মেন্দ্র সিংকে লক্ষ্য করে গুলির ঘটনায় শালিমার স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় শোরগোল শুরু হয়। ডিসি সেন্ট্রাল মহম্মদ সানা আখতার জানান, তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় চন্দন চৌধুরী। দেবেন্দ্র মিশ্র এবং বিকাশ সিং ওরফে ভিকি তাকে খুন করতে সহযোগিতা করে। তারপর রাতের অন্ধকার একটি গাড়িতে করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে চন্দন এবং ভিকি। তবে নাকা তল্লাশিতে বর্ধমানের (Burdwan) মেমারিতে তাদের গাড়িটি আটকায় পুলিশ। সেখান থেকে গ্রেপ্তার করা হয় চন্দন এবং ভিকিকে। সেদিনই বিকাশ সিংকেও গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের বিহারে পালানোর সম্ভাবনা ছিল বলেই মনে করছে পুলিশ। এই ধৃত তিনজনই এর আগেও একাধিক অপরাধমূলক কাজে জড়িত ছিল বলেই দাবি পুলিশের। প্রত্যেকের বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘আমায় মারতে পারে না বলে ওঁদের মারে’, আহত বিজেপি কর্মী‍দের দেখতে গিয়ে তোপ শুভেন্দুর]

পুলিশ সূত্রে খবর, শালিমারে নির্মাণ সংক্রান্ত কাজের সঙ্গে জড়িত ছিল দেবেন্দ্র মিশ্র, চন্দন চৌধুরী, বিকাশ সিং ওরফে ভিকি। নিহত তৃণমূল নেতা ধর্মেন্দ্র সিংও একই কাজের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ২২ কাঠা জমি নিয়ে দু’পক্ষের বিবাদ চলছিল। পথের কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন ধর্মেন্দ্র সিং। সে কারণেই দেবেন্দ্র মিশ্র, চন্দন চৌধুরী, বিকাশ সিং ওরফে ভিকি ওই তৃণমূল নেতাকে সরাতেই খুন করে।

[আরও পড়ুন: ঠিক যেন ঘরের মেয়ে, মহিলাদের অভিযোগ শোনার পর বোলপুরের ছোট্ট হোটেলে খুন্তিও নাড়লেন মুখ্যমন্ত্রী]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement