BREAKING NEWS

৮ শ্রাবণ  ১৪২৮  রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

গাড়িতে NHRC’র স্টিকার, ভুয়ো পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগ, উত্তরবঙ্গে আটক স্কুলশিক্ষক-সহ ২

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 11, 2021 8:50 pm|    Updated: July 11, 2021 8:50 pm

Police detains 2 including school teacher of introducing themselves as fake officer of NHRC | Sangbad Pratidin

নিজস্ব সংবাদদাতা, রায়গঞ্জ: মানবাধিকার কমিশনের (NHRC) ভাইস চেয়ারম্যানের স্টিকার লাগানো গাড়িতে। আর তা নিয়েই ঘোরাফেরা করেছেন বহুদিন। তবে শেষরক্ষা হল না আর। ভুয়ো পরিচয় দিয়ে দীর্ঘ সময়ে কাজ চালানোর অভিযোগে পুলিশের হাতে আটক উত্তর দিনাজপুর জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের (DPSC)প্রাক্তন চেয়ারম্যান তৃণমূলের বেঞ্জামিন হেমব্রম। সন্ধেবেলা রায়গঞ্জের চণ্ডীতলা এলাকা থেকে তাঁকে আটক করে কর্ণজোড়া ফাঁড়ির পুলিশ। ভারত সরকারের স্টিকার লাগানো গাড়িটি বাজেয়াপ্ত করে নিয়ে যাওয়া হয় রায়গঞ্জ থানায়। আটক ব্যক্তির কাছ থেকে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যান পদের অনুমতি সংক্রান্ত সরকারি নথিপত্র দেখতে চায় পুলিশ। তবে রাত পর্যন্ত তিনি তা দেখাতে পারেননি বলে খবর।

হেমতাবাদ আর্দশ হাই স্কুলের সহশিক্ষক পদে কর্মরত বেঞ্জামিন হেমব্রম উত্তর দিনাজপুর ডিপিএসসির চেয়ারম্যান পদে নিযুক্ত ছিলেন। বছর আড়াই আগে ডিপিএসসি পদ থেকে তাঁকে অপসারণ করা হয়। তারপর থেকে কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন কমিশনের লোগো লাগানো স্টিকার গাড়িতে সাঁটিয়ে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায় বেঞ্জামিনবাবুকে। হেমতাবাদে একই গ্রামে পরপর দুটি সুসজ্জিত দোতলা বাড়ি রয়েছে তাঁর। দুটি বহুমূল্যের গাড়িতে ইচ্ছামতো চড়ে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়ান। কিছুদিন হেমতাবাদ স্কুল ছেড়ে পুরুলিয়ার একটি স্কুলে বদলি নিয়ে যান। তারপর অবশ্য আবার হেমতাবাদ আর্দশ হাই স্কুলে নিযুক্ত হন।

[আরও পড়ুন: ‘আত্মহত্যা করেছে, ওকে বাঁচাও’, প্রেমিকের বন্ধুদের ফোন প্রেমিকার, তারপর…]

দীর্ঘ পেশাগত জীবনের অধিকাংশই এই ভুয়ো পরিচয়ে কাটিয়েছেন বেঞ্জামিন হেমব্রম। তাঁকে আটকের পর রায়গঞ্জ থানার আইসি সুরজ থাপা বলেন,”বেঞ্জামিন হেমব্রমকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যানের পরিচয় দেওয়া আটক ব্যক্তির প্রমাণপত্র পরীক্ষা করা চলছে।” অন্যদিকে, রায়গঞ্জ পুলিশ সুপার সুমিত কুমারের বক্তব্য, “ভারত সরকারের ভুয়া স্টিকার লাগানো সন্দেহে এক ব্যক্তিকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।”

[আরও পড়ুন: নাবালিকা প্রেমিকাকে লাগাতার ধর্ষণ ও বিক্রির চেষ্টা! গ্রেপ্তার ‘গুণধর’ প্রেমিক]

অন্যদিকে, একইরকম ভুয়ো (Fake) পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে জলপাইগুড়ির মালবাজার থেকে গ্রেপ্তার হয়েছেন এক যুবক। মানবাধিকার কমিশনের আধিকারিক পরিচয় দিয়ে প্রাইমারি স্কুলে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেথাতেন কোচবিহারের মোস্তাফি পাড়ার বাসিন্দা মৈনাক চক্রবর্তী। প্রতারিত এক ব্যক্তির অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার রাতে তাকে মেটেলি থানার পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। জলপাইগুড়ি জেলা পুলিশ সুপার দেবর্ষি দত্ত জানান, মৈনাক চক্রবর্তী নিজেকে মানবাধিকার কমিশনের অফিসার পরিচয় দিয়ে প্রাইমারি স্কুলে চাকরি দেওয়ার নাম করে মেটেলির বাসিন্দা অপু সরকার নামে এক যুবকের থেকে ৩০০০ টাকা নেয়। একটি অ্যাকাউন্ট নম্বর দিয়ে তাতে আরও টাকা দেওয়ার দাবি জানায়। যুবক খোঁজ নিয়ে দেখেন, অ্যাকাউন্ট নম্বরটি একটি রিসর্টের। এরপরই তাঁর সন্দেহ হওয়ায় মেটেলি থানায় অভিযোগ জানান। রাতে পুলিস তাকে গ্রেপ্তার করে। আর কে কে তার প্রতারণার জাল জড়িয়েছেন, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement