BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

টিকিয়াপাড়ায় পুলিশকে লাথি মারা সাকিরের বাড়িতে ত্রাণ পৌঁছে দিল প্রশাসন

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: May 3, 2020 4:55 pm|    Updated: May 3, 2020 4:58 pm

police helps the family of shakir, who seen kicking cop in Tikiapara

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনের নিয়ম মানা হচ্ছে না খবর পেয়ে মঙ্গলবার বিকেলে টিকিয়াপাড়ার বেলিলিয়াস রোডে টহলদারি চালাচ্ছিল পুলিশ। সেসময় কিছু লোক আচমকা জড়ো হয়েছিল সেখানে। কর্তব্যরত পুলিশকর্মীরা তাদের লকডাউনের নিয়ম মানতে বলায় উত্তেজনা ছড়ায়। আর এই নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে শুরু হয় তুমুল গন্ডগোল। পুলিশকর্মীদের উপর চড়াও হয় প্রায় ২০০ মানুষ। বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক শুরু হওয়ার পর শুক্রবার ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আর ভিড়ের মাঝে এক পুলিশকর্মীকে লাথি মারার জন্য ওইদিন রাতেই সাকির নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। এর ফলে সমস্যায় পড়ে যায় তার পরিবারের বাকি সদস্যরা। বাড়ির একমাত্র উপার্জনক্ষম মানুষটা জেলবন্দি থাকায় খাবার কোথা থেকে জোগাড় তা ভেবেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিল তারা। বিষয়টি জানতে পেরে পাশে দাঁড়াল হাওড়া সিটি পুলিশ।

সূত্রের খবর, শনিবার পুলিশকর্মীকে লাথি মারা অভিযোগে জেলবন্দি সাকিরের বাড়িতে গিয়ে ৫০ কেজি চাল, ৪০ কেজি আলু, ১৮ কেজি ডাল ও ২০ কেজি আটা তুলে দেয় তারা। এর ফলে প্রচণ্ড আবেগপ্রবণ হয়ে হাওড়া সিটি পুলিশকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছে সাকিরের পরিবারের সদস্যরা। পুলিশের মানবিক মুখের ছবি দেখে উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়েছে তাদের প্রতিবেশীরাও। যেখানে কয়েকদিন আগেই পুলিশকর্মীদের হেনস্তা করা হয়েছিল সেখানেই জয়ধ্বনি উঠছে তাঁদের নামে।

[আরও পড়ুন: ভিনজেলার কর্মী নিয়ে বেকারিতে কাজ, সংক্রমণের আশঙ্কায় বিক্ষোভ স্থানীয়দের]

যদিও বিষয়টি তাঁদের কর্তব্যের মধ্যেই পড়ে বলে জানিয়েছেন হাওড়া সিটি পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। তাঁদের কথায়, ওইদিন সাকির যে ঘটনা ঘটিয়েছে তার শাস্তি আইনে মেনে সে পাবে। কিন্তু, তার জন্য ওর পরিবারের সদস্যরা না খেয়ে মরবে এটা হতে পারে না। তাই যতটা সম্ভব সাহায্য করা হয়েছে। আর শুধু ওর পরিবারই নয়, হাওড়া এলাকার মধ্যে যেকোনও নাগরিক সমস্যায় পড়লেই সামর্থ্য অনুযায়ী সাহায্য করা হবে।

[আরও পড়ুন: ভাড়া দিতে না পারায় হেঁটেই অন্য জেলায় ফেরার চেষ্টা ঘরছাড়া দুই যুবকের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে