৬ শ্রাবণ  ১৪২৬  সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৬ শ্রাবণ  ১৪২৬  সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: ভোটে হেরেছেন। ফলপ্রকাশের তিন দিন পর সদ্য প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদের নামে পোস্টার পড়ল। রবিবার সাতসকালে চাঞ্চল্য ছড়াল পুরুলিয়া শহরে। বিজেপির দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে তৃণমূল। তবে তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দলের কারণে এমন ঘটনা ঘটতে পারে বলেও মনে করছেন অনেকেই।

[আরও পড়ুন: মাথাভাঙায় ‘আক্রান্ত’ বনমন্ত্রী, হামলার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে]

পুরুলিয়ায় কংগ্রেসের দাপুটে নেতা ছিলেন সীতারাম মাহাতো। সিদ্ধার্থশংকর রায়ের আমলে রাজ্যের মন্ত্রীও হয়েছিলেন। পরে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন তিনি। সীতারাম মাহাতোর ছেলে মৃগাঙ্ক মাহাতো। চিকিৎসক হিসেবে যথেষ্ট নামডাক আছে তাঁর। গতবার লোকসভা ভোটে পুরুলিয়া কেন্দ্রে মৃগাঙ্ক মাহাতোকে প্রার্থী করে তৃণমূল কংগ্রেস। দেড় লক্ষেরও বেশি ভোটে জিতে সাংসদ নির্বাচিত হন তিনি। এবারও পুরুলিয়া কেন্দ্রে শাসকদলের প্রার্থী ছিলেন বিদায়ী সাংসদই। কিন্তু, জিততে পারেননি তিনি। পুরুলিয়া থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন বিজেপি প্রার্থী জ্যোতির্ময় সিং মাহাতো। রবিবার সাতসকালে পুরুলিয়া শহরের প্রাণকেন্দ্র সাহেববাঁধ রোডে পরাজিত তৃণমূল প্রার্থী মৃগাঙ্ক মাহাতোর নামে একটি পোস্টার নজরে পড়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের। সদ্য প্রাক্তন সাংসদের ছবি দেওয়া পোস্টারের নিচে লেখা ছিল ‘অহংকারের পতন হল’। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, সাহেববাঁধ রোডে একটি ওষুধের দোকানের পাশের দেওয়ালে পোস্টারটি লাগানো ছিল। ওই ওষুধের দোকানের উলটো দিকে পরপর বেশ কয়েকটি চায়ের দোকান। সকালে ওই চা দোকানগুলিতে যেমন প্রাতঃভ্রমণকারীরা আসেন, তেমনি আবার বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কর্মীরাও আড্ডা দেন। ফলে পোস্টারটি নজরে আসার পর এলাকায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।

কিন্তু পুরুলিয়া শহরে পরাজিত তৃণমূল প্রার্থী মৃগাঙ্ক মাহাতোর নামে কারা পোস্টার দিল? বিজেপির দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতারা। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বিজেপির পুরুলিয়া জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী। তাঁর বক্তব্য, ‘এই ঘটনা আসলে সাধারণ মানুষের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। পোস্টারে ভুল কিছু লেখা হয়নি।’ তবে তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দলের কারণে যে এমন ঘটনা ঘটেনি, তাও কিন্তু বলা যাচ্ছে না। শাসকদলের অন্দরের খবর, এবার পুরুলিয়া কেন্দ্রে মৃগাঙ্ক মাহাতোকে প্রার্থী হিসেবে মেনে নিতে পারেননি তৃণমূল কর্মীদের একাংশ। বস্তুত, স্রেফ রক্ষী ও গাড়ির চালককে সঙ্গে নিয়েই প্রচার করতে দেখা গিয়েছিল পুরুলিয়া কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থীকে। ছিলেন না তৃণমূলের কোনও নেতাও। এদিকে তাঁর নামে শহরে পোস্টার পড়ায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন মৃগাঙ্ক মাহাতো।

ছবি: সুনীতা সিং

[আরও পড়ুন: কোচবিহারে ‘গদ্দার’ কে? প্রশ্ন উঠেছে তৃণমূলের অন্দরে]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং