২৯ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

আকাশনীল ভট্টাচার্য, বারাকপুর: ফের বোমাবাজিতে উত্তপ্ত হয়ে উঠল উত্তর ২৪ পরগনার নৈহাটি৷ শুক্রবার রাত থেকে আবারও রাজনৈতিক সংঘর্ষ শুরু হয় সাহেব কলোনি এলাকায়৷ দু’পক্ষের বোমাবাজিতে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা৷ পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয় এক বিজেপি কাউন্সিলরকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায়৷ তার প্রতিবাদে বারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংয়ের নেতৃত্বে নৈহাটি থানা অবরোধ করেন বিজেপি কর্মী, সমর্থকরা৷ শনিবার সকালেও সেই অশান্তি জারি ছিল এলাকায়৷ পথ অবরোধও হয়৷ আপাতত এলাকায় পুলিশ পিকেট থাকায় কিছুটা শান্ত এলাকা৷

[ আরও পড়ুন: প্রবল বর্ষণে পরপর দুর্ঘটনা কলকাতায়, বাড়ছে মৃতের সংখ্যা]

লোকসভা ভোটে আগে হোক বা পরে, বারাকপুর লাগোয়া নৈহাটি-ভাটপাড়া-কাঁকিনাড়া অঞ্চলে রাজনৈতিক অশান্তিতে উত্তপ্ত হয়েই রয়েছে৷ দিনেদুপুরে রাস্তাঘাটে বোমাবাজি, প্রকাশ্যে সংঘর্ষের জেরে পরিস্থিতি ক্রমশ হাতের বাইরে চলে যেতে থাকলে নড়েচড়ে বসে প্রশাসন৷ ভাটপাড়ায় শান্তি ফেরাতে সেখানে যান স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ রাতারাতি বারাকপুর পুলিশ কমিশনারকে অন্যত্র বদলি করে অত্যন্ত দক্ষ পুলিশ অফিসার মনোজ ভার্মাকে সেখানকার দায়িত্ব দেওয়া হয়৷ মনোজ ভার্মার নেতৃত্ব পুলিশ এলাকায় নিয়মিত রুটমার্চ করায় দুষ্কৃতী দাপট কিছুটা কমে৷ কিছুটা স্বস্তি ফেরে সাধারণ জনজীবনে৷

কিন্তু সেই শান্তিপূর্ণ পরিস্থিতি যে একেবারেই অস্থায়ী, তা টের পাওয়া গেল দিন কয়েক পরই৷ শুক্রবার রাত দশটা নাগাদ নৈহাটির সাহেব কলোনি এলাকায় ফের রাজনৈতিক সংঘর্ষ থেকে শুরু হয় বোমাবাজি৷ উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি৷ দু, একজন আহত হয়ে হাসপাতালে ভরতি হন৷ তাঁদের দেখতে যান স্থানীয় বিজেপি কাউন্সিলর গণেশ দাস৷ তাঁকে হাসপাতাল থেকেই পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে৷ অভিযোগ, তাঁর নেতৃত্বেই বিজেপি কর্মী, সমর্থকরা বোমাবাজি করছিল৷ এর প্রতিবাদে বারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংয়ের নেতৃত্বে রাত দেড়টা নাগাদই নৈহাটি থানা ঘেরাও করা হয়৷ তাঁদের দাবি, মিথ্যে মামলায় জড়িয়ে বিজেপি কাউন্সিলরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ অবিলম্বে তাঁকে ছেড়ে দিতে হবে৷ 

[ আরও পড়ুন: যুবককে মারধর করেছে পাশের গ্রামের লোকজন, অভিযোগে রাস্তা কাটল প্রতিবাদীরা]

শনিবার সকালেও সেই জের কাটেনি৷ সকাল হতে না হতেই ঘোষপাড়া রোডের গরুরফাঁড়ি মোড় অবরোধ করেন বিজেপি কর্মী, সমর্থকরা৷ অবরোধ করা হয় কল্যাণী রোডও৷ বেলা সাড়ে এগারোটা থেকে বেশ কিছুক্ষণ চলে অবরোধ৷ তারপর পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অবরোধ তুলে দেয়৷ তবে এলাকার পরিস্থিতি থমথমে৷ রয়েছে পুলিশ পিকেট৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং