BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

মমতা নয়, পুরুলিয়ার সভায় রাহুলের আক্রমণের নিশানায় মোদিই

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: May 7, 2019 4:20 pm|    Updated: May 7, 2019 4:20 pm

Rahul Gndhi targets Prime Minister Narendra Modi at Purulia rally

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এর আগে দু’বার রাজ্য সফরে এসে মোদি-মমতাকে এক আসনে বসিয়েছিলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। কিন্তু পুরুলিয়ার কোটশিলায় দিদির বিরুদ্ধে সুর ততটা তীব্র ছিল না কংগ্রেস সভাপতির। বরং তাঁর আক্রমণের মূল লক্ষ্য ছিলেন নরেন্দ্র মোদিই। তৃণমূল শাসিত রাজ্যে এসেও ‘দিদি’ সম্পর্কে খুব বেশি বাক্য ব্যয় করলেন না রাহুল। শুধু বললেন, মোদির মতো দিদিও কৃষকদের ফসলের উপযুক্ত মূল্য দিতে পারেননি। মোদির মতো মমতাও বেকারদের রোজগার দিতে পারেননি। কিন্তু ওই, অতদূরই। মমতার বিরুদ্ধে আলাদা করে কিছু বলতে শোনা গেল না রাহুলকে। তাঁর সংক্ষিপ্ত বক্তব্য পুরোটাই ছিল কংগ্রেসের প্রতিশ্রুতি কেন্দ্রিক।ন্যায় প্রকল্প থেকে শুরু করে কৃষকদের জন্য আলাদা বাজেট, ২২ লক্ষ সরকারি চাকরির প্রতিশ্রুতি, সবই ছিল রাহুলের বক্তব্যে।  আর সেই সঙ্গে মোদি সরকারের ব্যর্থতা তুলে ধরার প্রচেষ্টা।

[আরও পড়ুন: সমর্থক টানতে ব্যর্থ নেতৃত্ব, ফাঁকা মাঠেই মমতাকে আক্রমণ অমিত শাহের]

পুরুলিয়ায় এবার কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছেন বাগমুন্ডির বিধায়ক নেপাল মাহাতো। যিনি নিজের এলাকায় বেশ জনপ্রিয়। তাছাড়া পুরুলিয়া লোকসভায় এবার ত্রিমুখী লড়াই। ঝাড়খণ্ড লাগোয়া এই লোকসভা কেন্দ্রের দুটি কেন্দ্রে এখনও খাতায় কলমে কংগ্রেসের বিধায়ক রয়েছেন। তাই সব মিলিয়ে এই কেন্দ্রটিকে নিয়ে বেশ আশাবাদী কংগ্রেস। তাই হয়তো রাহুলকে দিয়ে এখানে সভা করানো। কিন্তু, এদিনের সভা থেকে মমতার বিরুদ্ধে আক্রমণের সুর খুব একটা চড়ালেন না কংগ্রেস সভাপতি।

আর পাঁচটা সভার মতোই রাহুল বক্তব্য শুরু করেন রাফালে দুর্নীতির প্রসঙ্গ তুলে। বলেন, “নরেন্দ্র মোদিকে দেশের মানুষ দায়িত্ব দিয়েছিল কৃষক, গরিব, বেকারদের চৌকিদারি করার। কিন্তু তিনি তা না করে অনিল আম্বানির চৌকিদারি করছেন। নরেন্দ্র মোদি আম জনতার ৩০ হাজার কোটি টাকা নিয়ে আম্বানির পকেট ভরিয়েছেন।” এদিন রাফালে নিয়ে বেশ কিছুক্ষণ বলেন রাহুল। চৌকিদার এবং চোর দুটি শব্দও শোনা যায় একাধিকবার। কিন্তু এদিন ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ একসঙ্গে বেশি বলতে শোনা গেল না রাহুলকে।

[আরও পড়ুন: ‘দেবদেবীকে শ্রদ্ধা করে না, তাঁদের নিয়ে রাজনীতি করে’, বাঁকুড়া থেকে বিজেপিকে তোপ মমতার]

কংগ্রেস সভাপতি এদিন বলেন, “কোনও শক্তিই মোদিকে আর প্রধানমন্ত্রী বানাতে পারবে না। মোদিকে মানুষ কড়া জবাব দেবে। ঝটকা দেবে। আপনি চুরি আর করতে পারবেন না।” প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাচনভঙ্গি নিয়েও এদিন কটাক্ষ করেন রাহুল। বলেন, “আগে প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য রাখতেন ৫৬ ইঞ্চি ছাতি নিয়ে। এখন আর বলতে পারেন না। টেলিপ্রম্পটার লাগাতে হয়। টেলিপ্রম্পটারে লেখা থাকে মোদিজি ভুল করে যেন বেকারত্ব নিয়ে কিছু না বলে ফেলেন।” রাহুলের অভিযোগ, “মোদিজি যেখানেই যান, ঘৃণা ছড়ান। কিছু না কিছু মিথ্যা কথা বলেন। এক ধর্ম কে অন্য ধর্মের সঙ্গে লড়িয়ে দেন। এক জাতকে অন্য জাতের সঙ্গে লড়াই করান।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে