BREAKING NEWS

১১ কার্তিক  ১৪২৭  বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

রাজীব কুমারকে এডিজি সিআইডি পদে ফেরাচ্ছে রাজ্য

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: May 26, 2019 9:04 pm|    Updated: May 26, 2019 9:16 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নির্বাচনী আচরণ বিধি শেষ হতেই ফের রাজীব কুমারকে রাজ্য গোয়েন্দা বিভাগের প্রধানের পদে ফিরিয়ে নিতে তৎপর রাজ্য। গ্রেপ্তারির জল্পনার মধ্যেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক থেকে কলকাতা পুলিশের প্রাক্তন কমিশনারকে এডিজি সিআইডি পদে ফিরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ নবান্নের। রবিবারই সন্ধেয় আইপিএস আধিকারিকের লাউডন স্ট্রিটের বাংলোয় হানা দেয় সিবিআই আধিকারিকের দল। আইনি নোটিস দিতে যাওয়ায় তুঙ্গে দ্রুত গ্রেপ্তারির জল্পনা। তার মধ্যেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে নবান্ন বলে সূত্রের খবর। অন্যদিকে, নির্বাচন বিধি উঠতেই অপসারিত পুলিশকর্তাদের ফের পুরনো পদে ফিরিয়ে নিচ্ছে রাজ্য। রাজেশ কুমারকে সরিয়ে কলকাতার পুলিশ কমিশনার পদে ফেরানো হচ্ছে অনুজ শর্মাকে। রাজেশ কুমারকে ওয়েটিংয়ে রাখা হয়েছে। একইসঙ্গে বিধাননগরের সিপির পদে নটরাজন রমেশ বাবুকে সরিয়ে ফের জ্ঞানবন্ত সিংকে আনা হয়েছে। রবিবার এই মর্মে রাজ্যের মুখ্যসচিব চিঠি পাঠিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সচিবকে।

নির্বাচন বিধি চালু হতেই রাজ্যে একের পর এক পুলিশকর্তাকে পদ থেকে সরানো হয়। প্রত্যেক দফার ভোটের আগেই সংশ্লিষ্ট জেলার পুলিশ সুপার-সহ অন্যান্য পুলিশ আধিকারিকদের অপসারণ করা হয়। এমনকী ভোটের কোনও দায়িত্বেই তাঁদের না রাখার নির্দেশিকা জারি করে নির্বাচন কমিশন। কমিশনের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রাজনীতির অভিযোগ তোলে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল। এর পিছনে কেন্দ্রের কলকাঠি নাড়ার অভিযোগও তোলা হয়। ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী চিঠি দেন কমিশনকে। তবে রাজ্যে নিযুক্ত বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষকের রিপোর্টের ভিত্তিতেই এই রদবদল বলে জানায় কমিশন। তার মধ্যেই প্রবল জল্পনা তৈরি হয় রাজীব কুমারের। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে গ্রেপ্তারি ঠেকাতে সাতদিনের আইনি রক্ষাকবচ পান রাজীব কুমার। কিন্তু সেই সাতদিনের মধ্যে সুপ্রিম কোর্ট বা কলকাতা হাই কোর্ট তাঁর আগাম জামিনের আবেদন খারিজ করে দেয়। ২৪ তারিখ মধ্যরাত পর্যন্ত সেই রক্ষাকবচের মেয়াদ ছিল। মেয়াদ ফুরোতেই জল্পনা তৈরি হয়েছে তাঁর গ্রেপ্তারির। রবিবার তাঁর লাউডন স্ট্রিটের বাড়িতে আইনি নোটিস দিতে যান সিবিআই আধিকারিকরা। সোমবার সকাল দশটায় সিজিও কমপ্লেক্সে তাঁকে দেখা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নোটিসে। এদিকে, সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বারাকপুরের সিপি সুনীল কুমার চৌধুরিকেও। তাঁর জায়গায় নতুন সিপি হয়েছেন মেদিনীপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবেন্দ্র প্রকাশ সিং। রাজনৈতিক মহলের ধারণা, বারাকপুরে বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিং ভোটে জেতায় কোপ পড়ল সুনীল কুমার চৌধুরির উপর।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement