৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

বিবেকানন্দ ‘ঠাকুরে’র বাংলা! মনীষীদের কথা বলতে গিয়ে ‘ভুল’ নাড্ডার, খোঁচা তৃণমূলের

Published by: Sayani Sen |    Posted: February 7, 2021 9:56 am|    Updated: February 7, 2021 12:25 pm

Row over JP Nadda's 'Vivekananda Thakur' speech ।Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দোরগোড়ায় বিধানসভা নির্বাচন (Assembly Election 2021)। বাঙালি আবেগকে হাতিয়ার করে বাংলা দখলের মরিয়া চেষ্টা বিজেপির। আবার তার বিরোধিতায় সরব শাসকদল তৃণমূল। সব মিলিয়ে ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণার আগেই উত্তপ্ত বাংলার রাজনৈতিক মহল। আর বাঙালি মনীষীদের নিয়ে কথা বলতে গিয়েই বিতর্ক বাড়ালেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। তাঁর ‘বিবেকানন্দ ঠাকুর’ মন্তব্যকে হাতিয়ার করেই খোঁচা তৃণমূলের।

শনিবার ফের বাংলা সফরে আসেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা (J.P.Nadda)। মালদহে কৃষকদের সঙ্গে মাঠে বসে খিচুড়ি খাওয়ার সহভোজে অংশ নেওয়া-সহ একাধিক কর্মসূচি ছিল তাঁর। এরপর নবদ্বীপে রওনা হন নাড্ডা। সেখানে চটির মাঠে রথযাত্রা কর্মসূচি উদ্বোধনের আগে একটি জনসভায় বক্তব্য রাখেন তিনি। সেই সময় মঞ্চে ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, সদ্য তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগদানকারী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ আরও অনেকে। বাংলার সংস্কৃতি নিয়ে বক্তব্য রাখতে গিয়ে একাধিক মনীষীর নাম নিতে থাকেন। স্বামী বিবেকানন্দের পরিবর্তে ‘বিবেকানন্দ ঠাকুর’ বলে বসেন। তাঁর এই মন্তব্য নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই বিভিন্ন মহলে চলছে জোর আলোচনা। রাতেই বক্তব্যের অংশটি টুইট করে তৃণমূল। ভুল বলে বিজেপি কার্যত বিবেকানন্দকে (Swami Vivekananda) অপমান করেছে বলেই দাবি ঘাসফুল শিবিরের।

[আরও পড়ুন: হলদি নদীর তীর থেকে শুরু অভিযান, বিজেপির প্রচারের সুর বাঁধতে আজ রাজ্যে মোদি]

এর আগেও একাধিকবার বিজেপির (BJP) বিরুদ্ধে বাংলার মনীষীদের অপমান করার অভিযোগ উঠেছে। অমিত শাহের (Amit Shah) সফরের মাঝে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙচুর নিয়ে আলোচনা কম হয়নি। সম্প্রতি ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি ওঠার ঘটনাতেও উঠেছে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুকে (Netaji Subhash Chandra Bose) ১২৫ তম জন্মজয়ন্তীতে অপমানের অভিযোগ। সেই তালিকাতেই এবার যুক্ত হল ‘বিবেকানন্দ ঠাকুর’ বিতর্ক। এর আগে হাওড়ার ডুমুরজলার সভামঞ্চে দাঁড়িয়ে ভুল জাতীয় সংগীত গাওয়ার অভিযোগও উঠেছে। রাজনৈতিক মহলের মতে, এ বিষয়ে মুখে কিছু না বললেও চরম অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির। আর বিরোধীপক্ষের অস্বস্তিই ভোটের আগে অক্সিজেন জোগাচ্ছে শাসকদলকে।

[আরও পড়ুন: অকাল বৃষ্টিতে ভিজল কলকাতা-সহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত, সোমবার থেকেই কমবে তাপমাত্রা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে