১৪  আষাঢ়  ১৪২৯  বুধবার ২৯ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দখল হটাতে গিয়ে আক্রান্ত আরপিএফ, রণক্ষেত্র ধুবুলিয়া স্টেশন

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 5, 2018 9:49 am|    Updated: April 5, 2018 10:07 am

RPF attacked by vendor in Nadia

সুব্রত বিশ্বাস:  স্টেশনে হকার উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার। এবার আরপিএফ কর্মীদের বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল হকারদের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন কৃষ্ণনগরের আরপিএফ ইনস্পেক্টর, হাবিলদার ও কনস্টেবল। বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার ধুবুলিয়া স্টেশনে।

জানা গিয়েছে,  ধুবুলিয়া স্টেশনে দখলদার হটাতে গিয়েই ঘটনাটি ঘটে। অভিযোগ, স্টেশনে ব্যবসা করা হকাররাই মারমুখী হয়ে উটে আক্রমণ করে। এই আক্রমণের জেরে গুরুতর চোট পান আরপিএফ ইন্সপেক্টর এ কে সিং। হাবিলদার আর কে দাস ও কনস্টেবল মহেশ ঘোষ। পালটা অভিযোগ করেছে হকাররাও। হকারদের দাবি, মাস কয়েক আগেই তারা নতুন দোকান দিয়েছে। আরপিএফ-ই তাদের দোকান করার অনুমতি দিয়েছে। রীতিমতো বহিরাগতদের নিয়ে হকারদের কাছ থেকে মোটা টাকা আদায় করেছে আরপিএফ। এই মোটা টাকার বিনিময়ে কৃষ্ণনগর,  বেথুয়াডহরি,  মুড়াগাছা,  ধুবুলিয়া, বাদকুল্লা, পলাশি স্টেশনে দোকান করা অনুমতি পায় হকাররা। দোকান তৈরি হয়ে ব্যবসা শুরুর পর খুব বেশিদিন কাটেওনি। ফের দোকান উচ্ছেদ করতে উঠে পড়ে লেগেছে আরপিএফ।

[কোচবিহারে মনোনয়ন জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার, প্রকাশ্যে আইসিকে ধমক মন্ত্রীর]

এদিন দুপুরে ধুবুলিয়া স্টেশনে হকার উচ্ছেদের কাজে হাত দেয় আরপিএফ। ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের কর্মীদের নিয়ে আরপিএফ স্টেশনের বেআইনি নির্মাণ ভাঙতে আসে। আচমকা আরপিএফের আহেন পদক্ষেপে প্রথমে হকচকিয়ে যায় ধুবুলিয়া স্টেশনের হকাররা। কিছুক্ষণের মধ্যেই ব্যাপারটি বুঝে গিয়ে পালটা প্রতিরোধ গড়ে তোলে। নির্মাণ ভাঙতে বাধা দেওয়া হয়। দুপক্ষের জোরাজুরিতে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় গোটা স্টেশন চত্বর। আরপিএফও নির্মাণ ভাঙবে, অন্যদিকে টাকা দিয়ে ব্যবসার সংস্থান করা হকাররা তা ভাঙতে দেবে না। কিছুক্ষণের মদ্যেই আরপিএফ ও হকারদের মধ্যে বেধে যায় ধুন্ধুমারকাণ্ড। হকাররা অন্ন সংস্থান বাঁচাতে আরপিএফের উপরে চড়াও হয়। এর জেরে আরপিএফ ইন্সপেক্টর-সহ বেশ কয়েকজন কর্মী আহত হন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় রেল পুলিশ। কিছুক্ষণের মধ্যেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে আঘাত লাগলেও এই ঘটনায় মারমুখী হকারদের বিরুদ্ধে কোনও অভিয়োগ দায়ের হয়নি। এমনকী, কাউকে গ্রেপ্তারও করেনি পুলিশ।

রেলপুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, সামনেই পঞ্চায়েত নির্বাচন। তাই আইনি ঝামেলা এড়াতে কড়া পদক্ষেপ করা সম্ভব হয়নি। হকারদের স্পষ্ট বক্তব্য,  আরপিএফকে পয়সা দিয়ে জায়াগা নিয়েছি। তুলতে এলে ছাড়ব না।

[মনোনয়ন জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত রায়গঞ্জ, বিজেপির মিছিলে চলল গুলি-বোমা]

চিত্র:প্রতীকী

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে