Advertisement
Advertisement

নজরে বেসরকারি স্কুলগুলির নিরাপত্তা, একগুচ্ছ নির্দেশ জারি স্কুলশিক্ষা দপ্তরের

জি ডি বিড়লা কাণ্ডে আদালতে গোপন জবানবন্দি নির্যাতিতা শিশুর।

School Education department issues instruction for student's safety in private schools
Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:December 11, 2017 1:01 pm
  • Updated:September 20, 2019 11:30 am

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  জি ডি বিড়লা কাণ্ডের পর এবার রাজ্যের বেসরকারি স্কুলে নিরাপত্তা জোরদার করতে উদ্যোগ নিল রাজ্য সরকার। সূত্রের খবর, দিনকয়েক আগে বেসরকারি স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন স্কুলশিক্ষা সচিব। বৈঠকে স্কুলে চত্বরে সিসিটিভি লাগানো, মেয়েদের স্কুলের পর্যাপ্ত সংখ্যায় আয়া রাখা-সহ একাধিক নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এমনকী মেয়েদের স্কুলে শারীরশিক্ষার শিক্ষক যদি পুরুষ হন, তাহলে ক্লাসে একজন আয়া রাখার নির্দেশ দিয়েছে স্কুলশিক্ষা দপ্তর। আপাতত মৌখিকভাবে নির্দেশ দেওয়া হলেও, প্রয়োজনে বিজ্ঞপ্তিও জারি করা হতে পারে বলে খবর। এদিকে, সোমবার আলিপুর আদালতে গোপন জবানবন্দি দিল জি ডি বিড়লায় নির্যাতিতা শিশুটি।

[‘সব দোষ কি আমার?’, প্রশ্ন জি ডি বিড়লার অপসারিত প্রিন্সিপালের]

Advertisement

সপ্তাহ দেড়েক আগে জি ডি বিড়লা স্কুলে চার বছরের এক পড়ুয়াকে যৌন হেনস্তার অভিযোগে তোলপাড় হয়েছিল গোটা রাজ্য। অভিযোগ, শৌচাগারে নিয়ে গিয়ে শিশুটিকে যৌন হেনস্তা করেছে স্কুলেরই দু’জন পিটি শিক্ষক। তড়িঘড়ি অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ। প্রিন্সিপালের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের হয়। এরপরই প্রিন্সিপালের অপসারণ ও গ্রেপ্তারি এবং পড়ুয়াদের নিরাপত্তার দাবিতে স্কুলে লাগাতার বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন অভিভাবকরা। তাঁদের অভিযোগ, বছর তিনেক আগে একই ঘটনা ঘটলেও, স্কুল কর্তৃপক্ষের হুঁশ ফেরেনি। স্কুলের চত্বরে সিসিটিভি বসানো তো দূর অস্ত, স্কুল বাসে, এমনকী শৌচাগারেও যথেষ্ট সংখ্যায় আয়া থাকে না।  অভিভাবকদের চাপে প্রিন্সিপাল শর্মিলা নাথকে অপসারণ করতে বাধ্য হয় জি ডি বিড়লা কর্তৃপক্ষ। গত শুক্রবার ফের পঠনপাঠনও শুরু হয়ে গিয়েছে স্কুলে।

Advertisement

[অভিভাবকদের চাপে ‘অপসারিত’ প্রিন্সিপাল, বৃহস্পতিবারই খুলছে জি ডি বিড়লা স্কুল]

এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার নড়চড়ে বসল রাজ্য সরকার। সূত্রের খবর দিন কয়েক আগে বেসরকারি স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে স্কুলশিক্ষা সচিব জানিয়ে দিয়েছেন, প্রতিটি স্কুল চত্বরে সিসিটিভি লাগাতে হবে। মেয়েদের স্কুলগুলির ক্ষেত্রে বাসে ও শৌচালয়ে পর্যাপ্ত সংখ্যায় আয়া রাখতে হবে। এমনকী, শারীরশিক্ষার শিক্ষক যদি পুরুষ হন, তাহলে ক্লাসেও আয়া রাখতে হবে। বস্তুত, প্রয়োজনে এই নির্দেশ কার্যকর করার জন্য বিজ্ঞপ্তিও জারি করতে পারে স্কুলশিক্ষা দপ্তর। যদিও বেসরকারি স্কুলে কীভাবে চলবে, তা সরকার ঠিক করে দিতে পারে কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। শিক্ষামন্ত্রী বক্তব্য, বেসরকারি হলেও, স্কুলগুলি রাজ্যে সীমার মধ্যেই অবস্থিত। তাই সেখানে পড়ুয়াদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার দায় এড়িয়ে যেতে পারে না সরকার

[খাদিমকর্তা অপহরণে ৮ দোষীরই যাবজ্জীবন সাজা ঘোষণা]

এদিকে ঘটনার প্রায় দেড় সপ্তাহে বাদে, সোমবার আলিপুর আদাসতে গোপন জবানবন্দি দিল জি ডি বি়ড়লায় নির্যাতিতা শিশুটি। এদিন সকালে বাবার কোলে চেপে আদালতে আসে সে। সূত্রের খবর, ঘটনার দিন তার সঙ্গে ঠিক কী করা হয়েছিল, তা ম্যাজিস্ট্রেটকে জানিয়েছে শিশুটি। জি ডি বিড়লার প্রিন্সিপাল-সহ দোষী কড়া শাস্তির দাবি জানিয়েছেন শিশুটির বাবা-মা।

[অধিকার বুঝে নেওয়ার দাবিতে শহরে প্রান্তিক যৌনতার মানুষদের রামধনু মিছিল]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ