BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

গোষ্ঠী-সংঘর্ষে উত্তপ্ত শ্রীরামপুর কলেজ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 5, 2016 10:28 am|    Updated: July 5, 2016 10:28 am

An Images

নিজস্ব সংবাদদাতা: তৃণমূল ছাত্র পরিষদের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে তুলকালাম চেহারা নিল শ্রীরামপুর কলেজ৷
দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত হয়েছেন পাঁচজন৷ তাঁদের মধ্যে তিনজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় শ্রীরামপুর ওয়ালশ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে৷ সোমবার দুপুরে এই সংঘর্ষের জেরে বিএসসি পাস কোর্সে প্রথম বর্ষের ভর্তি প্রক্রিয়া সাময়িকভাবে স্থগিত হয়ে যায়৷ পরে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব কলেজে গিয়ে অবস্থা নিয়ন্ত্রণে আনে৷ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ফের ভর্তি শুরু হয়৷
গোলমালের সূত্রপাত কলেজের ছাত্র সংসদের সভাপতি পরিবর্তনকে কেন্দ্র করে৷ কলেজ সূত্রে খবর, সভাপতির বদলকে কেন্দ্র করে গত এক সপ্তাহ ধরে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ দুই ভাগে ভাগ হয়ে যায়৷ ছাত্র সংসদের বর্তমান সভাপতি সোনিয়া সিং বর্তমানে প্রাক্তনী৷ কলেজের নিয়ম অনুযায়ী কোনও প্রাক্তনী ছাত্র সংসদের সভাপতি থাকতে পারেন না৷ তাই তিন সহ-সভাপতির মধ্যে থেকেই সভাপতি হিসাবে সঞ্জীব রামকে নিযুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷ কিন্তু সোনিয়া সিং ও তাঁর অনুগামীরা এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে রাজি না হওয়ায় গত এক সপ্তাহ ধরে গোলমাল চলছিল৷ সমস্যা মেটাতে শ্রীরামপুর কলেজ শনিবার গিয়েছিলেন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের আহ্বায়ক শান্তনু বাগ৷ তাঁকে দীর্ঘক্ষণ আটকে রাখা হয়৷ যদিও তিনি অভিযোগ অস্বীকার করেন৷
সোমবার কলেজ ছাত্র ভর্তি শুরু হতেই পরিস্থিতি ঘোরালো হতে শুরু করে৷ প্রথমে বচসা, তার পর দুইপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়৷ একপক্ষ অপরপক্ষের বিরু‌দ্ধে ইট ছুড়তে থাকে৷ লাঠি, রড নিয়ে একদল অপর দলের দিকে তেড়ে যায়৷ আহত হন সঞ্জীব রাম, অজিত সমাদ্দার, মানসী শ্রীবাস্তব-সহ পাঁচ ছাত্রছাত্রী৷ তবে কলেজের ভিতরে প্রবেশ করেননি তাঁরা৷
জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি শুভজিৎ সাউ জানান, একটা সমস্যা তৈরি হয়েছিল৷ মিটে গিয়েছে৷ এদিকে রাতেই স্থানীয় বিধায়ক ডাঃ সুদীপ রায়ের সঙ্গে আলোচনায় বসছেন জেলা নেতৃত্ব৷ সমস্ত বিষয়টি সংগঠনের রাজ্য সভাপতিকে জানানো হয়েছে৷ এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী যাওয়ার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement