BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কামালগাজিতে শুটআউট, গুলিবিদ্ধ আবগারি দপ্তরের গাড়িচালক

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: September 19, 2019 9:46 am|    Updated: September 19, 2019 9:49 am

An Images

ছবি: প্রতীকী

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: আসানসোল, মুর্শিদাবাদের পর এবার শহর কলকাতার কামালগাজি বাইপাসে শুটআউট। গুলিবিদ্ধ আবগারি দপ্তরের গাড়ির চালক। জখম হয়েছেন আরও একজন। কিন্তু কী কারণে তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা সে বিষয়ে এখনও কিছুই জানা যায়নি। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন:সাপের কামড়ে মৃত্যু কিশোরীর, অশরীরীর আতঙ্কে বাড়ির বাইরে রাত্রিযাপন গ্রামবাসীদের]

জানা গিয়েছে, বুধবার রাতে এক বন্ধুর সঙ্গে বাইকে কামালগাজি বাইপাস থেকে বারুইপুরের দিকে যাচ্ছিলেন কৌশিক গায়েন নামে এক ব্যক্তি। পেশায় আবগারি দপ্তরের গাড়ির চালক তিনি। সেই সময় মাঝরাস্তায় একদল দুষ্কৃতী তাঁদের পথ আটকায়। এরপর কাছ থেকেই কৌশিককে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়ে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। জখম হন কৌশিকের সঙ্গীও। এরপর আঘাত নিয়েই বাইক চালিয়ে কৌশিককে বারুইপুর হাসপাতালে নিয়ে যান ওই ব্যক্তি। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সেখান থেকে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় পিয়ারলেসে। এরপর সেখান থেকে নিয়ে যাওয়া হয় এসএসকেএমে। বর্তমানে সেখানেই চিকিৎসাধীন কৌশিক। চোট গুরুতর না হলেও এদিনের ঘটনায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন কৌশিকবাবুর সঙ্গী।

খবর পেয়ে ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। কিন্তু কেন এই ঘটনা? ব্যক্তিগত আক্রোশ নাকি অন্য কিছু তা নিয়ে ধোঁয়াশায় তদন্তকারীরা। কৌশিকবাবুকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তথ্য পাওয়া যেতে পারে বলে মনে করছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। প্রসঙ্গত, বুধবার ভোরে রাজ্যের দুই জায়গায় শুটআউটের ঘটনার ঘটে। আসানসোলে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয় এক ভাগচাষির। ঘটনার প্রতিবাদে সরব হন স্থানীয়রা। অন্যদিকে, মুর্শিদাবাদে এক বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন চা বিক্রেতাকে গুলি করে খুন করা হয়। রাজ্যে একের পর এক শুটআউটের ঘটনার পিছনে পুলিশি নিষ্ক্রীয়তার অভিযোগ তুলছেন অনেকেই।

[আরও পড়ুন: পরিত্যক্ত সরকারি ইট কারখানাই এখন দুষ্কৃতীদের ডেরা, পুনরুদ্ধারে তৎপর অন্ডাল প্রশাসন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement