BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আসানসোলে ফের শুটআউট, শুনশান রাস্তায় পড়ে ঠিকাদারের রক্তাক্ত দেহ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 18, 2020 9:58 am|    Updated: July 18, 2020 10:04 am

An Images

অঙ্কন: সুযোগ বন্দ্যোপাধ্যায়

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল: রেল শহর চিত্তরঞ্জনের রাস্তায় উদ্ধার হল গুলিবিদ্ধ ব্যক্তির দেহ। মৃত বছর সাঁইত্রিশের বলরাম সিং। জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তি রেল ইঞ্জিন কারখানায় ঠিকাদার ছিলেন। শুক্রবার বিকেলে কারখানার ওয়ার্কশপ অফিস থেকে জিএম অফিস যাওয়ার পথে দেহটি উদ্ধার হয়। মৃতদেহের পাশেই পড়ে ছিল হলুদ রঙের একটি স্কুটি। খবর পেয়ে আরপিএফ বলরাম সিংকে উদ্ধার করে চিত্তরঞ্জনের কেজি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। বলরামের মাথায় ও বুকে গুলির আঘাত রয়েছে।

বলরাম সিং রেল শহরের বাসিন্দা ছিলেন। স্থানীয় বাসিন্দারা জানাচ্ছেন, তিনি সিং সজ্জন ব্যক্তি। দিন কয়েক আগে তিনি নিজের বাবাকে সুস্থ করে তুলতে লিভার দান করেছেন। তাই তাঁর এই মর্মান্তিক পরিণতি দেখে চমকে উঠেছেন প্রতিবেশীরা। পুলিশের  ধারণা, এটি একটি খুনের ঘটনা। তবে খুনের কারণ নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতেই ঝাড়খণ্ডের দুষ্কৃতীরা এক যুবতীকে অপহরণের চেষ্টা করেছিল। তারপরেই এই খুনের ঘটনা। চিত্তরঞ্জন এলাকায় সংরক্ষিত রেলশহরের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

[আরও পড়ুন: স্বপ্না বর্মনের বাড়িতে অভিযানকারী রেঞ্জারকে বদলির প্রতিবাদ, বনমন্ত্রীকে চিঠি স্থানীয়দের]

আইএনটিইউসি নেতা নেপাল চক্রবর্তী বলেন, “শহরের বাইরে থেকে সাধারণ লোকের প্রবেশ এখানে নিষেধ। আরপিএফ রয়েছে প্রহরায়। সাধারণ দুধ বিক্রেতা, সবজি বিক্রেতাদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। কিন্তু তারপরেই পরপর দু’দিন দুটি বড় ঘটনা ঘটে গেল!” এই অবস্থায় শহরের নিরাপত্তার গাফিলতি নিয়ে তিনি প্রশ্ন তোলেন। বলরাম সিংকে অবশ্য নিজেদের কর্মী বলে দাবি তুলেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। ঘটনায় এখনও কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। তাতে আতঙ্ক আরও বাড়ছে স্থানীয় মানুষজনের।

[আরও পড়ুন: উচ্চমাধ্যমিকে ৭৫% নম্বর করোনায় মৃত শুভ্রজিতের, রেজাল্ট দেখে ভেঙে পড়লেন মা-বাবা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement