২৪ কার্তিক  ১৪২৬  সোমবার ১১ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

শুভদীপ রায় নন্দী, শিলিগুড়ি: এবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচির অনুকরণে একই ধরনের কর্মসূচি গ্রহণ করলেন বামফ্রন্ট শাসিত শিলিগুড়ি পুরসভার মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। সাধারণ মানুষের অভাব অভিযোগ জানতে ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচি চালু করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার সেই পথই অবলম্বন করলেন শিলিগুড়ির মেয়র তথা বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্য। পুর এলাকার যাবতীয় সমস্যা, অভাব, অভিযোগ জানাতে ‘মেয়রকে বলো’ কর্মসূচি চালু করার উদ্যোগ নিলেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ‘দিঘায় হবে মন্দির-মসজিদ-গির্জা’, ধর্মীয় পর্যটনকেন্দ্র তৈরির ভাবনা মুখ্যমন্ত্রীর]

মঙ্গলবার শিলিগুড়ি পুরনিগমের প্রশাসনিক ভবনে সাংবাদিক বৈঠকে এই উদ্যোগের কথা জানান মেয়র। পুর এলাকার বাসিন্দারা যাতে সমস্ত ওয়ার্ডের নাগরিক পরিষেবার পরিস্থিতি, অভিযোগ এবং প্রস্তাবের বিষয়ে সরাসরি মেয়রকে জানাতে পারেন, সেজন্য প্রতিটি বোরো কার্যালয় ও পুরনিগমের মূল প্রশাসনিক ভবনে বসানো হবে ‘গ্রিভান্স বক্স’। এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে মেয়র-সহ উপস্থিত ছিলেন মেয়র পারিষদ শংকর ঘোষ ও মুকুল সেনগুপ্ত। পাশাপাশি এদিন পুরনিগমের দু’টি ওয়ার্ডে ‘জিরো ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট’ চালু করার কথা জানান মেয়র। এছাড়া নাগরিক কনভেনশনের মাধ্যমে উঠে আসা সাধারণ মানুষের একাধিক প্রস্তাব নিয়ে বোর্ড অফ কাউন্সিলর ও মেয়র ইন কাউন্সিলের বৈঠকে আলোচনা করা হবে বলে জানান তিনি।

[আরও পড়ুন: মিড ডে মিল কাণ্ডে তৎপর বিকাশ ভবন, চুঁচুড়ায় স্কুল পরিদর্শনে যাচ্ছেন প্রজেক্টের ডিরেক্টর]

মেয়র অশোক ভট্টাচার্য বলেন, “সাধারণ মানুষ যাতে পুরনিগমের নাগরিক পরিষেবার বিষয়ে অভাব, অভিযোগ ও উন্নয়নের জন্য প্রস্তাব সরাসরি আমাকে জানাতে পারে সেজন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রতিটি বোরো অফিসে ও পুরনিগমের মূল ভবনে একটি করে ‘গ্রিভান্স বক্স’ বসানো হবে। সেটি সরাসরি আমি বা বাছাই করা মেয়র পারিষদরা মনিটরিং করবেন।” গ্রিভান্স বক্সের পাশাপাশি পুরনিগমের হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর ও ওয়েবসাইটের মাধ্যমেও সরাসরি তাঁকে অভিযোগ জানানো যাবে। অভিযোগ আসলে তা দ্রুত সমাধানের চেষ্টা করা হবে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং