BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কালো পতাকা দেখিয়ে সৌমিত্র খাঁর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ, থানা অবরোধ বিজেপি প্রার্থীর

Published by: Tanujit Das |    Posted: April 13, 2019 9:25 pm|    Updated: April 23, 2019 6:11 pm

Soumitra Khan alleged against TMC for creating trouble

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: প্রচারে বেরিয়ে আক্রান্ত হলেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি প্রার্থী সৌমিত্র খাঁ। শনিবার দুপুরে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়াল পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষের শশঙ্গা এলাকায়। পুলিশের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলে রাস্তায় বসে প্রতিবাদ করলেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি প্রার্থী৷ অভিযোগ করলেন, তৃণমূলের লোকজন তাঁর গাড়িতে হামলা করেছে। তাঁকে কালো পতাকা দেখিয়েছে। কিন্তু পুলিশ দেখেও কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। তাঁর হুঁশিয়ারি, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার না করলে, কলকাতায় অনশনে বসবেন।

[ আরও পড়ুন:  তৃণমূল বিধায়ককে তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি, বিতর্কে লকেট চট্টোপাধ্যায়  ]

যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব৷ তাঁদের দাবি, ওই ঘটনার সঙ্গে দলের কোনও যোগাযোগ নেই। সৌমিত্র খান শুধু দুর্নীতি করেছে, নিজের লোকসভা কেন্দ্রের কোনও উন্নয়ন করেননি। তাই ওটা সাধারণ মানুষের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। এর আগেও খণ্ডঘোষ বিধানসভা এলাকায় প্রচারে এসে কালো পতাকা দেখতে হয়েছে সৌমিত্র খাঁকে। তিনি যেখানেই প্রচারে গিয়েছেন, সেখানেই এলাকার বাসিন্দারা কালো পতাকা দেখিয়েছেন। এদিনও রাস্তার দু’ধারে সারিবদ্ধ জনতা বিষ্ণুপুরের বিদায়ী সাংসদকে দেখে ‘গো ব্যাক’ স্লোগান তোলে। আচমকা একদল লোক তাঁর গাড়ির উপর হামলা চালায় এবং তাঁর গাড়িতে লাঠি দিয়ে আঘাত করে বলে অভিযোগ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনার সৃষ্টি হয় এলাকায়। ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি সামাল দেয় পুলিশ।

[ আরও পড়ুন: ‘এত নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী আগে কখনও দেখেননি’, মোদিকে বেনজির আক্রমণ অভিষেকের ]

এই ঘটনার পরই সৌমিত্র খাঁ খণ্ডঘোষ থানায় যান। থানার সামনে রাস্তায় অবরোধে বসেন তিনি৷ যদিও পরে তা তুলে নেন৷ বিষ্ণুপুরের বিজেপি প্রার্থী বলেন, “তৃণমূলের গুণ্ডাবাহিনী আমার উপর হামলা করেছে। পুলিশ সেসময় নীরব দর্শকের ভূমিকায় ছিল। এই পুলিশের উচিত শাড়ি-চুড়ি পরে থাকা। সাধারণ মানুষের অসুবিধার কথা ভেবে আজ আমি অবরোধ তুলে নিলাম। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অভিযুক্তরা গ্রেপ্তার না হলে, কলকাতায় নির্বাচন কমিশনে গিয়ে অনশনে বসব।” বিজেপির অভিযোগ, ওই এলাকার তৃণমূল নেতা শ্যামল পাঁজার নেতৃত্বে এই হামলা হয়েছে। যদিও এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের কোনও সম্পর্ক নেই বলেই দাবি করেন শশঙ্গা অঞ্চলের তৃণমূল সভাপতি শ্যামল বাবু। তাঁর পালটা দাবি, গত ৫ বছর সাংসদ থেকেও এলাকায় কোনও উন্নয়নের কাজ করেননি সৌমিত্র খান। এলাকাতেও আসেননি। এখন ভোট চাইতে এসেছেন৷ তাই বাসিন্দারা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।’’

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে