BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

অভিনব উদ্যোগ, দামোদর নদের পাড়ে হরেক জীববৈচিত্রের খোঁজে শুরু অভিযান

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 15, 2018 7:55 pm|    Updated: July 15, 2018 7:55 pm

Start the search for biodiversity growing on the banks of Damodar river

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: শিল্পশহরের জীববৈচিত্র খুঁজতে প্রথম ‘বায়ো ডাইভারসিটি ওয়াক’৷ দুর্গাপুরের এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার উদ্যোগে দামোদর নদকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠা জীববৈচিত্রের সন্ধান চালাল ১৩ জনের একটি প্রতিনিধি দল৷

জীববৈচিত্রের সন্ধানে নামতেই এল সাফল্য৷ উঠে এল বহু নাম না জানা উদ্ভিদ, পতঙ্গ৷ মূলত, পরিবেশের স্বার্থে এই জীববৈচিত্রকে সংরক্ষণ করাই ‘ওয়াইল্ড লাইপ ইনফর্মেশন অ্যান্ড নেচার গাইড সোসাইটি’র অন্যতম কাজ৷ সংরক্ষেণের পাশাপাশি অজানা উদ্ভিদ, কীট, পতঙ্গদের সঙ্গে সাধারণ মানুষের সঙ্গে পরিচয় ঘটানাও ও তাঁদের মধ্যে সচেতন করাটাই সংস্থার মূল লক্ষ্য বলে জানা গিয়েছে৷

[স্ট্যান্ডে চলছে জাগলিং, ফুটবল জ্বরে চন্দননগর যেন মিনি ফ্রান্স]

রবিবার সংগঠনের তরফে প্রথম জীববৈচিত্রের সন্ধানে হাঁটতে গিয়ে যেসব জীবের সন্ধান মিলেছে তাদের সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ ও ছবি তোলাও হয়েছে৷ পরিচয় জানতে ফেসবুকের বিভিন্ন বিশেষজ্ঞদের সহযোগিতা নিচ্ছে এই সংস্থা৷ রবিবার প্রথম ‘বায়েডাইভারসিটি ওয়াক’-এর ৪৩ প্রজাতির পাখি, ১২ রকমের প্রজাপতি, ছ’ধরনের ফড়িংয়ের দেখা মিলেছে৷ দামোদরের পাড়ে দশ রকমের মাকড়সারও সন্ধান মিলেছে৷ উদ্ভিদের মধ্যে স্থলে ৪২ ধরনের উদ্ভিদের খোঁজ মিলেছে সংগঠনের প্রথম ‘জীববৈচিত্রের খোঁজে হাঁটা’য়৷ স্থলজ এই উদ্ভিদের মধ্যে দু’টির প্রজাতি চিহ্নিত করা সম্ভব হয়নি বলেই সংগঠনের সূত্রে জানা গিয়েছে৷ নদের পাড় বা চর অঞ্চলে বিভিন্ন ধরনের উদ্ভিদের সন্ধান মিলেছে৷ জলজ উদ্ভিদের মধ্যে ছ’টি উদ্ভিদকে চিহ্নিতকরণ সম্ভব হয়েছে৷ চারটি শৈবাল জাতীয়, দশটি ছত্রাক জাতীয় ও দু’টি মস জাতীয় উদ্ভিদের দেখা পাওয়া গিয়েছে৷ এছাড়াও নগরন্নোয়ন ও আবহাওয়ার পরিবর্তনের ফলে জীববৈচিত্রে কী কী প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে, তা তথ্যও সংরক্ষণ করে রাখার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে৷

[তোলাবাজির অভিযোগে পুলিশের জালে টিএমসিপির সাধারণ সম্পাদক]

সংস্থার তরফে জানা গিয়েছে, এবার থেকে প্রতিমাসেই এই ধরনের ‘বায়োডাইভারসিটি ওয়াক’ করা হবে বলে দাবি করেছে ‘উংগস’৷ শুধু দামোদর কেন্দ্রিকই নয়, দুর্গাপুর মহকুমার বিভিন্ন অঞ্চলে ঘুরবে ‘উংগস’৷ দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলে জীব পরিবর্তনের ধারাবাহিকতার ব্যাপারেও তথ্য সংগ্রহ করছে তারা৷ এই সংগৃহীত তথ্য প্রথমে ফেসবুকে নির্দিষ্ট বিশেষজ্ঞ গ্রুপে পোষ্ট করা হবে৷ প্রয়োজনে বিশেষজ্ঞদেরও সাহায্য নেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে৷ চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে ‘উংগস’রই উদ্যোগে ‘বার্ড ওয়াক’ অনুষ্ঠিত হয়েছিল৷ ‘উংগস’-এর সদস্য সাগর অধূর্য বলেন, “সাধারণ মানুষের মধ্যে পরিবেশ সচেতনতা সম্পর্কে ধারণা তৈরি করাই আমাদের লক্ষ্য৷ সংরক্ষণের মাধ্যমে এই জীববৈচিত্রকে ধরে রাখাই আমাদের উদ্দেশ্যে৷ পরিবেশের মধ্যে বেঁচে থাকা এই অচেনা অতিথিদের সাধারণ মানুষের সঙ্গে পরিচিত করে দেওয়াই আমাদের সার্থকতা৷”

ছবি: উদয়ন গুহ রায়৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে