BREAKING NEWS

০৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  সোমবার ২৩ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

তৃণমূলের আগুনে জল ঢেলে দেবে বিজেপি, পালটা তোপ দাগলেন দিলীপ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 17, 2018 9:04 pm|    Updated: July 17, 2018 9:04 pm

State BJP Prez. Dilip Ghosh critisized TMC

সোমনাথ পাল, বনগাঁ: সপ্তাহের শুরুতেই রাজ্যে এসে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ সোচ্চার হয়েছিলেন রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে সিন্ডিকেট চালানোর অভিযোগে৷ দলনেতার সেই সুরে সুর মিলিয়েই তৃণমূলের সমালোচনায় মুখর হলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতেই শাসক দলকে দিলেন হুঁশিয়ারি৷ ছুঁড়ে দিলেন কটাক্ষ৷

[ফের সন্দেহজনক পোস্টারে ঢাকল গোটা চুঁচুড়া পুরসভা, রহস্যভেদে নাকাল কর্তারা]

প্রধানমন্ত্রীর সভার একদিন পর, মঙ্গলবার উত্তর-২৪-পরগণার বাগদা অঞ্চলে সংগঠনের অবস্থা খতিয়ে দেখতে হাজির হয়েছিলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি৷ দিনের শুরুতেই গোপালনগরে দলীয় পার্টি অফিসের উদ্বোধন করেন তিনি৷ এরপর যোগ দেন বাগদা থানার অন্তর্গত নাটাবেড়িয়ায় পঞ্চায়েতে জয়ী প্রার্থীদের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে৷ প্রায় ঘণ্টা দুয়েকের বৈঠকে তাঁদের কাছ থেকে জেনে নেন এলাকায় দলের সাংগঠনিক অবস্থা৷ পরামর্শ দেন বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে৷ গতকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সভায় লোক সমাগম নিয়ে শাসকদলের পক্ষ থেকে চরম কটাক্ষ ছুঁড়ে দেওয়া হয়েছিল৷ বলা হয়েছিল, ভিন রাজ্য অর্থাৎ বিহার, ওড়িশা, ঝাড়খণ্ড থেকে ভাড়ায় লোক এনে প্রধানমন্ত্রীর সভা ভরিয়েছেন রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব৷ বাগদা থানার সিন্দ্রানীর একটি জনসভা থেকে কটাক্ষের উত্তর কটাক্ষের সুরেই দেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি৷ শাসক দলের নেতাদের পাগল বলে সম্বোধন করে তিনি বলেন, রাজ্যে গেরুয়া শিবিরের উত্থান দেখে ভয় পাচ্ছে তৃণমূল নেতৃত্ব, তাই ভুল বকছে৷

[গ্রিন সিটি হচ্ছে বালুরঘাট, উদ্যোগ পুরসভার]

সোমবার প্রধানমন্ত্রীর সভার পর একটা গুরুতর অভিযোগ উঠেছিল বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে৷ সভায় ঢুকতে না পেরে স্থানীয় সিভিক ভলান্টিয়ারদের মারধর করেছিল তারা৷ সেই ঘটনা নিয়েও মুখ খোলেন দিলীপ ঘোষ৷ পালটা অভিযোগে বলেন, তৃণমূল কংগ্রেসে কথা শুনে কাজ করেছে পুলিশ ও প্রশাসন৷ বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করা হয়েছে। পুলিশের আরও সংযত হয়ে পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণ করা উচিৎ ছিল বলে তাঁর দাবি৷ তখনও মেদিনীপুরের বাইরে পা রাখেননি প্রধানমন্ত্রী, তার আগেই তৃণমূল ক্যাম্প থেকে ভেসে আসে গর্জন৷ যৌথ প্রেস বিবৃতিতে মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও রাজ্যসভার দলনেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন বিজেপি নেতৃত্বের সমালোচনার পাশাপাশি হুঁশিয়ারি দেন৷ বলেন, আগুন নিয়ে খেলা করেছেন বিজেপি নেতারা৷ শাসকের সেই হুঁশিয়ারিকে আমল দিতে নারাজ রাজ্য বিজেপি সভাপতি৷ উলটে তাঁর জবাব, তৃণমূলের আগুনে জল ঢেলে দেবে বিজেপি৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে