Advertisement
Advertisement

রাজ্যে আসুক বুলেট ট্রেন, মোদিকে আরজি মমতার

বাজেট বর্হিভূতভাবে ১২,১৮০ কোটি বরাদ্দ।

State government proposes center for bullet train in West Bengal
Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:September 15, 2017 1:52 pm
  • Updated:September 15, 2017 1:56 pm

দীপঙ্কর মণ্ডল, নবান্ন: পুজোর মুখে সুখবর। রাজ্যের পরিকাঠামো উন্নয়নে বেশ কিছু ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। ১২টি নতুন উড়ালপুল, একাধিক সেতু এবং রাস্তা চওড়া করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর জন্য বাজেট বর্হিভূতভাবে বরাদ্দ করা হয়েছে ১২,১৮০ কোটি টাকা । পাশাপাশি অন্ডাল-দমদম এবং দুর্গাপুর-কলকাতার মধ্যে বুলেট ট্রেন চালানোর জন্য কেন্দ্রকে প্রস্তাব দিয়েছে রাজ্য।

bullet-train_web

Advertisement

নবান্নে এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, আর্থিক সঙ্কটের মধ্যেও এই সমস্ত কাজ করতে রাজ্য বদ্ধপরিকর। আগামী তিন বছরের যা শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মনে করেন সব প্রকল্প শেষ হলে রাজ্যে স্বর্ণযুগ আসবে। পরিকাঠামো খাতে বরাদ্দ বাড়িয়ে রাজ্যের পরিবহণ ব্যবস্থা ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এই অর্থে ১২টি নতুন ফ্লাইওভার তৈরি হবে। যার মধ্যে রয়েছে গণেশচন্দ্র অ্যাভিনিউ থেকে নিউ মার্কেট পর্যন্ত উড়ালপুর ও মহাত্মা গান্ধী রোডের ওপর উড়ালপুল। পৃথিবীর অন্যান্য প্রাচীন এবং উন্নত শহরের তুলনায় কলকাতায় রাস্তার পরিমান বেশ কম। অথচ ফি বছর লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে গাড়ির সংখ্যা। রাস্তা বাড়াতে উড়ালপুল তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। শুধু কলকাতা নয়, রাজ্যের পরিবহণব্যবস্থায় গতি আনতে পূর্ব বর্ধমানের কালনায় ভাগীরথীর ওপর সেতু তৈরি করা হবে। অজয় নদের ওপর সেতু বানানোর পরিকল্পনা রয়েছে। কলকাতা লাগোয়া চন্দননগরের জন্য পানীয় জলের প্রকল্পের গতি আনার কথাও বলা হয়েছে।

Advertisement

[পুজোর ভিড় সামলাতে নয়া দাওয়াই মেট্রো কর্তৃপক্ষর]

জাপানের প্রধানমন্ত্রীকে বৃহস্পতিবার বুলেট ট্রেন প্রকল্পের শিলান্যাস করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মুম্বই-আমেদাবাদ রুটে এই ট্রেনটি ২০২২ সালের মধ্যে চালু হওয়ার কথা। দ্রুতগতির ট্রেনের সঙ্গে এই রাজ্যও জুড়তে চায়। এর জন্য রাজ্য সরকারের তরফে রেলকে কলকাতা-অন্ডাল এবং দুর্গাপুর-শিয়ালদহ রুটে বুলেট ট্রেনের আবেদন জানানো হয়েছে। অন্ডালে বিমানবন্দরের কাজ চলছে। বুধবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে ওই প্রকল্প শেয়ার বাড়িয়ে ২৬ শতাংশ করেছে রাজ্য। প্রশাসন মনে করে ওই বিমানবন্দরের সঙ্গে কলকাতা বিমানবন্দরের যাতায়াতের সুবিধায় বুলেট ট্রেন হলে যাত্রীদের সুবিধা হবে।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ