BREAKING NEWS

২ মাঘ  ১৪২৮  রবিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

শেষবেলায় জাঁকিয়ে শীত ডুয়ার্সে, খুশি পর্যটকরা

Published by: Sulaya Singha |    Posted: February 18, 2019 5:24 pm|    Updated: February 18, 2019 5:24 pm

Sudden fall Of temperature in Dooars

অরূপ বসাক, মালবাজার: দক্ষিণবঙ্গ থেকে বিদায়ের পথে শীত । ধীরে ধীরে উর্দ্ধমুখী তাপমাত্রার পারদ। তবে উলটো ছবি উত্তরবঙ্গে। ফের জাঁকিয়ে শীত পড়েছে ডুয়ার্স ও উত্তরবঙ্গের জেলা গুলিতে। সোমবার  সকাল থেকেই কুয়াশার চাদরে মোড়া ছিল ডুয়ার্স। আলিপুরদুয়ার, দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি ও শিলিগুড়িতে সকালের দিকে ঝিরঝিরে বৃষ্টিও হয়।

[ প্রহসন অব্যাহত, মাধ্যমিকের পঞ্চম দিনেও ফাঁস প্রশ্নপত্র]

সারাবছরই কমবেশি পর্যটকদের ভিড় থাকে উত্তরবঙ্গ সহ গোটা ডুয়ার্সে। কনকন ঠান্ডা উপভোগ করতে শীতকালে পর্যটকদের ভিড় বাড়ে ডুয়ার্স-সহ উত্তরবঙ্গে। বছরের অন্য সময়েও পর্যটক কম থাকে না। কিন্তু পর্যটকরা যেমনটা চান,  তেমনি আবহাওয়া তো আর সবসময় পাওয়া যায় না! তবে সোমবার সকাল থেকে ডুয়ার্সের আবহাওয়া ছিল যেন একদম পর্যটকদের মনের মতোন। রবিবার  থেকেই ডুয়ার্সে একধাক্কায় বেশ অনেকখানি নেমেছে তাপমাত্রার পারদ। তার উপর সকাল থেকেই আবার আকাশের মুখও ভার। যতদূর চোখ যায় শুধুই কুয়াশা আর কুয়াশা। কুয়াশা আর মেঘলা আকাশের কারণে কমেছে দৃশ্যমানতা। রাস্তাঘাটে তেমন লোকজনের দেখা নেই, বিপর্যস্ত রেল চলাচলও। প্রায় সব ট্রেন নির্ধারিত সময়ে থেকে বেশ কিছুটা দেরিতে চলছে ট্রেন । বাস সহ অন্যান্য পরিবহণের ক্ষেত্রেও একই ছবি । ফলে কার্যত ঘরবন্দি স্থানীয়রা। স্কুল কলেজেও উপস্থিতির হার অন্যদিনের তুলনায় অনেকখানিই কম। তবে ডুর্য়াসে আবহাওয়ায় থুশি পর্যটকরা। প্রবল ঠান্ডা, কুয়াশা, এমনকী বৃষ্টিকেও উপেক্ষা করে ঘুরতে বেড়িয়ে পড়েছেন তাঁরা। খুব ঠান্ডা লাগলে রাস্তার ধারে আগুন জ্বালিয়ে শরীর গরম করে নিচ্ছেন অনেকেই। 

শীতের শেষে পাহাড়ের এই আবহাওয়ায় মুখে হাসি ফুটেছে হোটেল ব্যবসায়ীদের। কারণ সমস্যা হলেও পর্যটকদের আকর্ষণ বাড়াতে যে এমনই এই আবহাওয়াউ প্রয়োজন,  তা বলার অপেক্ষা রাখে না। হোটেল ব্যবসায়ীদের কথায়, এই আবহাওয়া বজায়  থাকলে ডুয়ার্সে  বাড়বে পর্যটকদের ভিড়।

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে