২৭ আশ্বিন  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৫ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

দীপাঞ্জন মণ্ডল, নয়াদিল্লি: সুপ্রিম কোর্টের রায়ে সাময়িক স্বস্তি পেলেন বারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিং৷ রাজ্য সরকারের দায়ের করা একাধিক মামলায় গ্রেপ্তারি এড়াতে সুপ্রিম কোর্টে আগাম জামিনের আবেদন করেছিলেন তিনি৷ বুধবার সেই আবেদন মঞ্জুর করল শীর্ষ আদালত৷ ভাটপাড়ার প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ককে পাঁচ দিনের আগাম জামিন মঞ্জুর করলেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অরুণ মিশ্র ও এমআর শাহের ডিভিশন বেঞ্চ৷

[ আরও পড়ুন: যোগী রাজ্যে ‘নির্যাতিত’, মোদি জিতলে গ্রাম ছাড়ার সিদ্ধান্ত সংখ্যালঘুদের]

লোকসভা নির্বাচনের প্রার্থী হওয়া নিয়ে নিজের দলের সঙ্গেই বিরোধে জড়িয়ে পড়েন অর্জুন সিং৷ তৃণমূলের টিকিটে বারাকপুর লোকসভা আসনে এবার প্রার্থী হতে চান তিনি৷ কিন্তু তাঁর সেই ইচ্ছাপূরণ করেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এবারও ওই কেন্দ্র থেকে দীনেশ ত্রিবেদীকেই প্রার্থী করে শাসকদল৷ ক্ষুব্ধ অর্জুন সিং তৃণমূল ত্যাগ করেন এবং যোগ দেন বিজেপিতে৷ তাঁকে বারাকপুরের প্রার্থী ঘোষণা করে গেরুয়া শিবির৷ কেবল দলবদলই নয়, মুখ্যমন্ত্রী ও তাঁর প্রাক্তন দলের বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগড়ে দেন তিনি৷ তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোলাবাজি ও গুন্ডারাজ চালানোর অভিযোগ করেন তিনি৷ পালটা অর্জুনের বিরুদ্ধে তেড়েফুঁড়ে নামে শাসকদলও৷ তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক মামলা দায়ের করে রাজ্য সরকার৷ নির্বাচন ঘোষণা হয়ে যাওয়ায় এবং পুলিশের নিয়ন্ত্রণ কমিশনের হাতে থাকায়, এতদিন ওই মামলাগুলিতে অর্জুনকে গেপ্তার করতে পারেনি রাজ্য পুলিশ৷ সূত্রের খবর, অর্জুনের আশঙ্কা, নির্বাচন মিটলেই গ্রেপ্তার হতে পারেন তিনি৷ এবং সেই আশঙ্কা থেকেই সুপ্রিম কোর্টে আগাম জামিনের আবেদন করেন বারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী৷ পাঁচদিনের জন্য যা এদিন মঞ্জুর করল শীর্ষ আদালত৷ ফলে আগামী ২৮ মে পর্যন্ত অর্জুন সিংকে গ্রেপ্তার করা যাবে না৷

[ আরও পড়ুন: ‘সিংহের গুহায় ঢুকেছিলাম ভুল বোঝাতে’, RSS-এর অনুষ্ঠানে যোগ নিয়ে বললেন প্রণব ]

বারাকপুরের লোকসভা নির্বাচন ও ভাটপাড়া বিধানসভার উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে উত্তপ্ত রয়েছে গোটা এলাকা৷ দফায় দফায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে তৃণমূল-বিজেপি সমর্থকরা৷ নির্বাচনের দিনও রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে বারাকপুর৷ বোমাবাজির অভিযোগ ওঠে শাসক-বিরোধী দু’দলের বিরুদ্ধেই৷ বর্তমানে ভাটপাড়া এলাকায় জারি রয়েছে ১৪৪ ধারা৷ এলাকায় মোতায়েন রয়েছে বিশাল পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনী৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং