BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২১ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নোট বাতিলই মোদির বিদায় নিশ্চিত করবে, দাবি শুভেন্দুর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 13, 2016 9:02 am|    Updated: November 13, 2016 9:03 am

Suvendu attacks Narendra Modi for note ban

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের জেরে গোটা দেশে অসুস্থ ও প্রবীণ মানুষদের অশেষ দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে! এই রোগীর পরিবারের অভিশাপেই আগামী লোকসভা ভোটে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিদায় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে বলে দাবি করলেন রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী৷

উন্নয়নের ঝড়ে সিপিএমও দ্রুত পূর্ব মেদিনীপুর তথা বাংলা থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে৷ কারণ, সিপিএম উন্নয়নের বদলে শুধু রাজনীতি করত, উল্টো দিকে মাত্র সাড়ে পাঁচ বছরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার গোটা দেশে রেকর্ড সংখ্যক উন্নয়ন করেছে৷ আর সেই উন্নয়নের শরিক হতে প্রতিদিনই দলে দলে সিপিএম-ফরওয়ার্ড ব্লক-সহ বামপন্থীরা তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন৷ আগামী লোকসভা ভোটে মানুষের আশীর্বাদ নিয়ে রাজ্যের সমস্ত আসনেই জয়ী হবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রার্থী৷ তমলুক উপনির্বাচনের প্রচারে শনিবার এভাবেই আত্মবিশ্বাসী কন্ঠে বাংলাকে সিপিএম-শূন্য করার ডাক দিলেন পরিবহণমন্ত্রী৷

(মানুষের সঙ্গে জালিয়াতি করা হয়েছে, মোদিকে ফের তোপ মমতার)

তৃণমূলপ্রার্থী দিব্যেন্দু অধিকারীর সমর্থনে উপনির্বাচনী মঞ্চ থেকে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি সাংসদ মুকুল রায় বলেন, ‘দু’বছর পর লোকসভা ভোট৷ তাই এই উপনির্বাচন কার্যত সেমিফাইনাল৷ এই ভোটে ২০১৪ সালের চেয়ে বেশি মার্জিনের ভোটে সমস্ত বুথ থেকে জিতে দিল্লির বিজেপি সরকারকে বার্তা দিতে হবে৷ বুঝিয়ে দিতে হবে, বাংলার ৪২টি লোকসভা আসনেই জিতবে তৃণমূল৷ কারণ, সম্প্রীতি ও উন্নয়নের প্রতীক একজনই৷ তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ আর তৃণমূলনেত্রীই হবেন আগামী লোকসভা ভোটের পর বিজেপি বিরোধী সরকারের মূল নিয়ন্ত্রক৷”

মহিষাদল রাজবাড়ির লাগোয়া ছোলাবাড়ির মাঠে নির্বাচনী প্রচারে এসে পরিবহণমন্ত্রীর যুক্তি, “মাস কয়েক আগের বিধানসভা নির্বাচনেও সমর্থনের প্রশ্নে মানুষের মনে কোনও বিরোধী দল ছিল না৷ সিপিএমের ৩৪ বছরের অনুন্নয়নের পর মমতাদির পাঁচ বছরের উন্নয়নের স্রোতে সব ধুয়ে মুছে সাফ হয়ে গিয়েছিল৷ কিন্তু দিল্লির সরকার নির্বাচন কমিশনকে ব্যবহার করে মিডিয়ার একাংশকে হাতিয়ার করে তৃণমূলকে হেনস্তার চেষ্টা করেছিল৷ পুলিশ ও দিল্লির পাঠানো প্যারামিলিটারি দিয়ে কিছু তৃণমূল নেতার বাড়ি তল্লাশি করে দোষ চাপানোর চেষ্টা হয়েছিল৷ কিন্তু মানুষ শুধুমাত্র ২১১ আসনে তৃণমূলকে জিতিয়ে সিপিএম-কংগ্রেস ও বিজেপির আঁতাঁতকে মুখের উপর কড়া জবাব দিয়েছে৷ দিনের আলোর মতো আজ বাংলার মানুষের কাছে সব স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে৷ শুভেন্দু বলেন,“২৫ আসনের হলদিয়া পুরসভা শীঘ্রই বিরোধীশূন্য হবে৷ সবাই উন্নয়নের টানেই তৃণমূলে আসছেন৷” সিপিএম প্রার্থীর নাম না করে পরিবহণমন্ত্রী বলেন,‘‘যিনি বামপ্রার্থী তাঁর বাড়ির পাশের পানীয় জলের সাবমার্সিবল পাম্পটিও আমিই বসিয়ে দিয়েছি৷”

(দুর্ভোগেও পাশে আছি, ব্যাঙ্কে গিয়ে বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর)

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে