BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার কর্মী আবাসনে অবাধে চলছে চুরি, আতঙ্কিত স্থানীয়রা

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: February 3, 2019 5:30 pm|    Updated: February 3, 2019 5:30 pm

Thieves ruining government housing

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল: কারখানা বন্ধ হয়ে গিয়েছে বহুদিন আগেই। কিন্তু পুরনো স্মৃতি আঁকড়ে কোয়ার্টারেই থেকে গিয়েছেন অনেকেই। তবে আসানসোলের রূপনারায়ণপুরের হিন্দুস্তান কেবলস-এর কর্মী আবাসনের বেশির কোয়ার্টারই ফাঁকা। আর সেই সুযোগে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার আবাসন চত্বরে ঢুকে অবাধে লুটপাট চালাচ্ছে দুষ্কৃতীরা। দিনের আলোয় লোপাট হয়ে যাচ্ছে দরজা-জানলা, লোহার রড, এমনকী ইটও। প্রতিবাদ করলে বা বাধা দিতে গেলে আবাসিকদের হুমকি মুখে পড়তে হচ্ছে বলে অভিযোগ। হিন্দুস্তান কেবলস-এ চুরির ভিডিও ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

[ ‘চেন কিলার’-এর দৌরাত্ম্য কালনায়, গলায় লোহার শিকল পেঁচিয়ে চলছে লুটপাট]

শিল্পশহর আসানসোলে এখন শিল্পেই ভাঁটার টান। উৎপাদন বন্ধ বহু কারখানায়। সেই তালিকায় বেসরকারি সংস্থা যেমন আছে, তেমনি আছে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাও। রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার হিন্দুস্তান কেবলস-এর কারখানা ছিল আসানসোলের রূপনারায়ণপুরে। কিন্তু গত বছর থেকে কারখানায় উৎপাদন পুরোপুরি বন্ধ। কর্মীদের বেশিরভাগই স্বেচ্ছাবসর বা ভিআরএস নিয়েছেন। কারখানা লাগোয়া কর্মী আবাসনের প্রায় ১২০০টি কোয়ার্টার রয়েছে। রয়েছে স্কুল, পোস্ট, গেস্ট হাউস ও কমিউনিটি হলও। কারখানা যখন চালু ছিল, তখন কোয়ার্টারেই থাকতেন কর্মীরা। কিন্তু, এখন ভিআরএস নিয়ে হিন্দুস্তান কেবলস-এর বেশিরভাগ কর্মীই আসানসোল ছেড়ে অন্যত্র চলে গিয়েছেন। আর যাঁরা এখনও রয়েছে গিয়েছেন, দুষ্কৃতীদের উপদ্রবে রীতিমতো আতঙ্কে দিন কাটছে তাঁদের।

আসানসোলে হিন্দুস্তান কেবলস-এর কর্মী আবাসনের বাসিন্দাদের অভিযোগ, কোয়ার্টারে নিরাপত্তার কোনও বালাই নেই। প্রকাশ্যে দিবালোকে আবাসন ঢুকে হাতের কাছে যা পাচ্ছে, তাই লুট করে নিয়ে চলে যাচ্ছে দুষ্কৃতীরা। চোখের সামনে সরকারি সম্পত্তি চুরি হতে দেখে কেউ কেউ প্রতিবাদ করেছিলেন। কিন্তু, দুষ্কৃতীরা তাঁদের হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ। সম্প্রতি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার আবাসনে লুটপাঠের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

দেখুন ভিডিও:

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে