৩১ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ১৭ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

ভাস্কর মুখোপাধ্যায়, বোলপুর: ফের উত্তপ্ত বীরভূমের লাভপুর। অনুব্রত গড়ে আবারও বোমাবাজি। এবার টার্গেট এলাকার এক তৃণমূল নেতা। তাঁর বাড়িতে বোমাবাজির ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে লাভপুরের দাড়কা গ্রাম এলাকায়। আক্রান্ত ওই তৃণমূল নেতা দাড়কার অঞ্চল সভাপতি। নাম কাজল রায়। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে তাঁর বাড়িতে বোমাবাজি করা হয় বলে অভিযোগ। তবে বোমাবাজির ঘটনায় কেউ হতাহত হননি।

[ আরও পড়ুন: এবার আইনি ফাঁদে হালিশহর পুরসভা, চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হাই কোর্টে বিক্ষুব্ধ কাউন্সিলররা ]

এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির মধ্যে সংঘর্ষ ক্রমশ তীব্র আকার নিচ্ছে। এটিও তারই প্রতিফলন বলছে মনে করছে স্থানীয়রা। ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে গোটা গ্রামে। ঘটনাস্থলে পৌঁছয় লাভপুর থানার পুলিশ। তৃণমূলের অভিযোগ, এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা যুক্ত। কাজল রায় অভিযোগ করেন, “আমাকে মারার চক্রান্ত কিরছে বিজেপি। তার জন্য আমার বাড়ি লক্ষ্য করে বোমা ছোঁড়া হয়েছে।” ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

এদিকে চলতি মাসে এই দাড়কা গ্রামের স্বাস্থ্যকেন্দ্রের একটি পরিত্যক্ত কোয়ার্টারে বোমা বিস্ফোরণ হয়। পুরো কোয়ার্টারটি ধূলিস্যাৎ হয়ে যায়। এই ঘটনায় পুলিশ বেশ কয়েক জনকে গ্রেপ্তার করলেও মূল অভিযুক্ত সুখচাঁদ শেখ এখনও অধরা। বিজেপির লাভপুর ব্লক সভাপতি সুবীর মণ্ডল বলেন, এটা তৃণমূলের গোষ্ঠীদন্দ্ব। কাটমানির টাকা নিয়ে গোটা জেলাতে এই গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব চলছে।

[ আরও পড়ুন: নেপথ্যে পরকীয়া, চপ-মুড়ির সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে স্বামীকে খুন মহিলার ]

এছাড়া এমাসের গোড়ার দিকে লাভপুরের মিরবাঁধ এলাকায় বিস্ফোরণে ভেঙে পড়ে বন্ধ হয়ে যাওয়া একটি স্বাস্থ্যকেন্দ্র৷ স্থানীয় সূত্রে খবর, দীর্ঘদিন ধরেই ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসা হত না৷ বন্ধ স্বাস্থ্যকেন্দ্রেই দুষ্কৃতীরা আসর জমিয়েছিল৷ কারও কারও দাবি, এলাকায় যতদিন যাচ্ছে ততই বাড়ছে অসামাজিক কার্যকলাপ৷ ওই কাজে ব্যবহারের জন্য বোমা মজুত করে রেখেছিল দুষ্কৃতীরা৷ তার জেরে এমন বিপত্তি ঘটে৷ ঘটনায় তৃণমূলের দাবি করেছিল, বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে৷ যদিও গেরুয়া শিবিরের তরফে অভিযোগ খারিজ করে দেওয়া হয়৷ পালটা গোটা ঘটনার দায় ঘাসফুল শিবিরের দিকেই ঠেলে দেয় তারা৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং