৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভোট মিটে গিয়েছে৷ তবে ফলপ্রকাশের পর থেকে একের পর জায়গায় অশান্তি লেগেই রয়েছে৷ সেই তালিকায় নবতম সংযোজন বর্ধমান শহরের তিনকোনিয়া৷ তৃণমূলের বুথ এজেন্টকে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ৷ ঘটনায় নাম জড়িয়েছে বিজেপির৷ যদিও পদ্ম শিবিরের নেতৃত্বের দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে তাঁদের দলীয় কর্মী সমর্থকদের যোগসাজশ থাকতেই পারে না৷ বরং বিজেপির দাবি, তৃণমূলের বুথ এজেন্ট মারধরের ঘটনায় আরও একবার প্রকাশ্যে চলে এল তৃণমূলের অন্তর্কলহ৷ তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নাকি বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের পরিকল্পিত হামলা? তৃণমূলের বুথ এজেন্টকে মারধরের ঘটনায় একাধিক প্রশ্নের ভিড়৷ হামলার পর প্রায় দুদিন কেটে গেলেও এই ঘটনায় এখনও কেউ গ্রেপ্তার হয়নি৷

[ আরও পড়ুন: ভোট পরবর্তী হিংসা অব্যাহত, কোচবিহারে গুলিবিদ্ধ তৃণমূল কর্মী]

আক্রান্ত সনৎকুমার গোয়াল, বর্ধমান শহরের সাত নম্বর ওয়ার্ডের তিনকোনিয়ার বাসিন্দা৷ পেশায় লটারি ব্যবসায়ী৷ তৃণমূলের সক্রিয় কর্মী হিসাবেও এলাকায় পরিচিতি রয়েছে তাঁর৷ লোকসভা নির্বাচনে বুথ এজেন্টও ছিলেন তিনি৷ গত শনিবার দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফিরছিলেন৷ অভিযোগ, সেই সময় রাস্তায় বেশ কয়েকজন ঘিরে ধরে তাঁকে৷ রাস্তার উপর ফেলে বেধড়ক মারধরও করা হয় ওই তৃণমূল কর্মীকে৷ দুষ্কৃতীদের দৌরাত্ম্যের এখানেই শেষ নয়৷ অভিযোগ, মারধরের পাশাপাশি দোকানও লুট করে তারা৷ দোকান থেকে মহাজনদের পাওনা প্রায় তিন লক্ষ টাকা লুট করা হয়েছে বলেই দাবি আক্রান্তের৷ লুটপাট করে বেরনোর সময় লটারির বেশ কিছু টিকিটও সঙ্গে নিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা৷

[ আরও পড়ুন: বালুরঘাটে বিজেপির বিজয় মিছিলে চলল গুলি, অভিযুক্ত তৃণমূল]

এই ঘটনায় তৃণমূল এবং বিজেপি দুপক্ষের মধ্যেই চলছে অভিযোগ-পালটা অভিযোগের পালা৷ হামলার দায় বিজেপির কাঁধেই চাপিয়েছেন আক্রান্ত তৃণমূল কর্মী৷ যদিও সেই অভিযোগকে নস্যাৎ করেছে গেরুয়া শিবির৷ বিজেপি কর্মী সমর্থকরা এহেন কাজ করতে পারে না বলেই দাবি নেতৃত্বের৷ গোটা ঘটনাকে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বলেও সুর চড়িয়েছে বিজেপি৷ এদিকে, মারধরের ঘটনার পর থেকেই আতঙ্কিত ওই তৃণমূল কর্মী৷ অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন নির্যাতিত৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং