BREAKING NEWS

২৩ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শনিবার ৬ জুন ২০২০ 

Advertisement

গেরুয়া শিবিরে ভাঙন, গারুলিয়া পুরসভায় অনাস্থা ডাকল তৃণমূল

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: September 16, 2019 3:57 pm|    Updated: September 16, 2019 3:58 pm

An Images

আকাশনীল ভট্টাচার্য, বারাকপুর: বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে হারানো জমি ধীরে ধীরে উদ্ধার করছে তৃণমূল। রাজনৈতিক পালাবদলের হাত ধরে সবুজ থেকে গেরুয়া হয়েছিল ওই কেন্দ্রের একাধিক পুরসভা। মাসখানেক ধরে সেখানে উলটপূরাণ শুরু হয়েছে। এবার তৃণমূল থেকে বিজেপিতে রূপান্তরিত গারুলিয়া পুরসভাতেও গেরুয়া শিবিরে ভাঙন ধরাল তৃণমূল।

দলত্যাগী তিন কাউন্সিলর বিজেপি থেকে তৃণমূলে ফিরতেই পুরপ্রধান সুনীল সিংয়ের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব জমা দিল জোড়াফুল শিবির। সোমবার সকালে গারুলিয়া পুরসভার ১২ জন কাউন্সিলর পুরপ্রধান সুনীল সিংয়ের বিরুদ্ধে সিইও’র কাছে অনাস্থা প্রস্তাব জমা দেন। গারুলিয়ার পুরপ্রধান সুনীলের সঙ্গে ১১ জন কাউন্সিলরও বিজেপিতে যান। তৃণমূলের কাউন্সিলর সংখ্যা দাঁড়ায় ৯। সংখ্যাগরিষ্ঠতায় এগিয়ে যায় বিজেপি। কিন্তু এখন ১২ জন তৃণমূলে আর বিজেপির ৮। তাই এদিন অনাস্থা আনল তৃণমূল কংগ্রেস।

সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাঁচড়াপাড়ায় যে জনসভা করেছিলেন, তার ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে ছিলেন সুনীল সিং৷ এছাড়া নৈহাটিতে মুখ্যমন্ত্রীর ধরনা কর্মসূচিতেও সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে৷ দলের তরফে তাঁর দায়িত্ব বাড়ানো হয়েছিল, উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূলের আহ্বায়ক করা হয় তাঁকে৷ লোকসভা নির্বাচনের আগে অর্জুন সিংয়ের প্রস্থানের পর দলের মধ্যে যথেষ্ট গুরুত্ব বাড়ানো হয় নোয়াপাড়ার বিধায়কের৷ এমনকী, তিনি নিজেও দলের প্রতি আনুগত্য দেখিয়েছিলেন৷ জানিয়েছিলেন, তিনি তৃণমূলেই রয়েছেন৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেই রয়েছেন৷

কিন্তু, হঠাৎ সুনীল সিংয়ের দলবদল তৃণমূলের কাছে ছিল ধাক্কা। সেইসঙ্গে গারুলিয়া পুরসভার একাধিক কাউন্সিলর তাঁর সঙ্গে যোগ দেন বিজেপিতে। তবে দলত্যাগী বেশ কিছু কাউন্সিলর তৃণমূলে ফিরে আসায় চাপে গেরুয়া শিবির।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement