BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

উন্নয়নকে সামনে রেখে প্রচারে আত্মবিশ্বাসী কল্যাণ, মাদলের তালে পা মেলালেন রত্না

Published by: Bishakha Pal |    Posted: March 24, 2019 4:23 pm|    Updated: March 24, 2019 4:23 pm

TMC candidate Kalyan Banerjee confident of victory

দিব্যেন্দু মজুমদার ও দেবাদৃতা মণ্ডল: রবিবার মানেই ছুটির দিন। তাই এই দিনে একটুও সময় নষ্ট করতে চান না কোনও ভোটপ্রার্থী। সকাল থেকেই তাই কোমর বেঁধে প্রচারে নেমে পড়েছেন সবাই। ব্যতিক্রম নন শ্রীরামপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার সকালে মন্দিরে পুজো দিয়ে চণ্ডীতলা বিধানসভা কেন্দ্রের ভগবতীপুর ও নবাবপুরে প্রচার শুরু করেন তিনি। প্রচারে তাঁর অস্ত্র ছিল উন্নয়ন। প্রায় ৭-৮ কিলোমিটার রাস্তা হুডখোলা গাড়িতে চেপে প্রচার চালান তিনি। প্রচারের সময় সাংসদের গলায় ছিল আত্মবিশ্বাসের সুর। তিনি জানান, এবছর মহিলা ভোটারদের প্রতিক্রিয়া বেশ ভাল। এর সম্পূর্ণ ক্রেডিট তিনি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। বলেছেন, মহিলাদের জন্য অনেক কাজ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। ভারতবর্ষে তিনি একটি নিদর্শন স্থাপন করেছেন। সাধারণ মানুষের আস্থা বে়ড়েছে। তাঁরা বুঝেছেন, উন্নয়ন তাঁর হাত দিয়েই হবে।

মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নকে হাতিয়ার করে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় তোপ দেগেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দিকে। বলেছেন, দুই ধর্মের মধ্যে লড়াই বাধিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। নোটবন্দি ইস্যুটিও তুলছেন শ্রীরামপুরের বিদায়ী সাংসদ। বলেছেন, এলাকার অনেকে কাজের সূত্রে বাইরে গিয়েছিলেন। কেউ কেরল, কেউ মুম্বইয়ে থাকতেন। কিন্তু নোটবন্দি হওয়ার পর সবাই ফিরে এসেছেন। তাঁরা বুঝতেই পারছেন, তাঁদের সঙ্গে কী হয়েছে। সাংসদের বক্তব্য, চাকরি প্রার্থীদের মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মোদি।

[ আরও পড়ুন: অংক দিয়ে বাজিমাত, প্রতিযোগিতায় জট খুলে জাতীয় পুরস্কার বঙ্গতনয়ের ]

বক্তব্য রাখতে গিয়ে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে রাহুল গান্ধীর গোপন আঁতাঁতের কথাও বলেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। জানান, তাঁর মনে হচ্ছে যাতে বঢরা যেন জেল থেকে ছাড়া পায়, তাঁদের বিরুদ্ধে যাতে কোনও মামলা না হয়, সেই কারণেই মোদির সঙ্গে হাত মিলিযেছেন রাহুল গান্ধী। “কালিদাস যে ডালে বসেছিল, সেটাই কেটেছিল। রাহুল গান্ধী কাল সেটাই করে দিয়ে গেল।” কটাক্ষ কল্যাণের। তিনি এও বলেন, রাহুল গান্ধী পশ্চিমবঙ্গের বিষয়ে কিছুই জানেন না। পশ্চিমবঙ্গে মহিলাদের ৫০ শতাংশ সংরক্ষণ, কৃষকদের জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পদক্ষেপ নিয়ে অবগতই নন কংগ্রেস প্রেসিডেন্ট। রাহুল গান্ধীকে সরাসরি আক্রমণ করে সাংসদ বলেন, “গত চার বছরের মধ্যে সাড়ে তিন বছর তো ঘুমিয়েছে লোকসভায়। ও জানবে কী করে? আসলে বিজেপি ও কংগ্রেস একটা কয়েনের দুটো দিক।” এদিকে হুগলির পাণ্ডুয়ায় আজ ভোট প্রচারে গিয়ে ভোটারদের সঙ্গে কিছুক্ষণ নাচন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী রত্না দে নাগ। মাদলের তালে তালে পা মেলান তিনি।

[ আরও পড়ুন: উত্তর দিনাজপুরে মুখ্যমন্ত্রীর ছবিতে কালি, কাঠগড়ায় বিজেপি ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে