BREAKING NEWS

৮ কার্তিক  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কাঁথির সভায় অমিত শাহকে কটাক্ষ সৌগতর, গরহাজির অধিকারী পরিবারের সকলেই

Published by: Sayani Sen |    Posted: December 23, 2020 4:35 pm|    Updated: December 23, 2020 4:42 pm

TMC leader Saugata Roy slams Union Home Minister Amit Shah ।Sangbad Pratidin

রঞ্জন মহাপাত্র, কাঁথি: জল্পনার অবসান ঘটিয়ে সদ্যই দলবদল করে বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। টানটান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে কাঁথিতে হাইভোল্টেজ সভা তৃণমূলের। বুধবারের সভায় ছিলেন ফিরহাদ হাকিম এবং সৌগত রায়। তাঁদের নেতৃত্বে মিছিলও হয়। মিছিল কিংবা সভায় দেখা মিলল না অধিকারী পরিবারের কাউকেই। কেন শিশির কিংবা দিব্যেন্দু অধিকারীকে দেখা গেল না কাঁথির সভায়? তবে কী বাড়ির ছেলের পথই অনুসরণ করতে চলেছেন তাঁরাও। তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে চলছে জোর চর্চা।

দিনকয়েক আগে বঙ্গ সফরে আসেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah)। এদিনের সভা থেকে অমিত শাহের বঙ্গ সফরকে জোরাল কটাক্ষ করেন সৌগত রায়। তিনি বলেন, “মোটা ভাই অমিত শাহ হনুমানের মতো লাফিয়ে বারবার বাংলায় আসছে।” নাম না করে শুভেন্দু অধিকারীকেও কটাক্ষ করেন তিনি। বলেন, “নন্দীগ্রামের আন্দোলন স্থানীয়রা করেছেন। কোনও সরস্বতীর বরপুত্র সুন্দর চেহারা নিয়ে এসে করেননি। অনেক লোক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চ্যালেঞ্জ করছে। হাওয়াই চটি, নীল পাড় সাদা শাড়ি পরা কেউ রাজ্য চালাবেন তা মানতে পারছেন না দিল্লির কেউ। তাই অপপ্রচার।”

[আরও পড়ুন: কোভিড পরিস্থিতিতে অভূতপূর্ব কাজ, স্কচ অ্যাওয়ার্ড পেল রাজ্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তর]

জেপি নাড্ডার কনভয়ে হামলা প্রসঙ্গে বিজেপির খোঁচারও পালটা জবাব দেন সৌগত (Saugata Roy)। তিনি বলেন, “ছোট ঘটনাকে নিয়ে অকারণ বাড়াবাড়ি করছে। বিজেপি এমন ভাব করছে যেন ভারত-চিনের যুদ্ধ হয়ে গিয়েছে।” তিন আইপিএস আধিকারিককে ডেপুটেশনে চাওয়ার ইস্যুতেও কেন্দ্রকে একহাত নেন তিনি। বিধানসভা নির্বাচনের (Assembly Election 2021) আগে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে বারবার আক্রমণ করছে বিজেপি। দলীয় নেতাকর্মীদের মৃত্যুকে রাজনীতি করার জন্য ‘খুন’ বলে চালানোর চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও দাবি সৌগতর। তাঁর কথায়, “প্রেমে ব্যর্থ হয়ে অনেক বাচ্চারা গলায় দড়ি দেয়। স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া হলে অনেক সময় স্বামী গলায় দড়ি দেন। আর তাদেরই নিজের নেতাকর্মী বলছে বিজেপি। শহিদ বলে দাবি করছে। আর বলছে বিজেপি কর্মীকে খুন করেছে তৃণমূল।” দিলীপ ঘোষকে (Dilip Ghosh) ‘মত্ত ষাঁড়’ বলে কটাক্ষ তৃণমূল নেতার। তাঁর তোপ, “রোজ সকালে দিলীপ হাঁটতে বেরচ্ছেন। যা খুশি তাই বলছেন। আমি বলব দিলীপ ঘোষ বাপের ব্যাটা হলে তৃণমূলকে মেরে দেখ। দেখে নেব।”

এদিকে, এই সভা শুরুর আগে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে মেদিনীপুরের রামনগরের (Ramnagar) দেপাল গ্রাম। ওই এলাকায় বিজেপির একটি প্রতিবাদ মিছিল ছিল। বিজেপির (BJP) অভিযোগ, তাদের প্রতিবাদ মিছিল চলার সময় বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে তৃণমূল। এরপর তৃণমূলের (TMC) তরফ থেকে ইট, পাটকেল ছোঁড়া শুরু হয়। এই ঘটনায় বেশ কয়েকজন কর্মী-সমর্থক জখম হন বলেও দাবি গেরুয়া শিবিরের। তৃণমূল যদিও হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে। তাদেরও বেশ কয়েকজন জখম হয়েছে বলেই দাবি। রামনগর থানার পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দেয়।

[আরও পড়ুন: ‘ক্ষমতায় আসার ১০ বছরেও কেন বাসুদেব বাউলের কথা মনে পড়েনি তৃণমূলের’, খোঁচা অনুপমের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement