১০ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ২৪ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: গণপিটুনিতে যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে উঠল দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড়। মঙ্গলবার রাতে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড়ের সাতুলিয়া বাজার এলাকায়। জানা গিয়েছে, এক তৃণমূল কর্মীকে খুনের চেষ্টা করেছিল ওই যুবক। ধরা পড়ে যাওয়ায় গণপিটুনি দেওয়া হয় তাকে। ইতিমধ্যেই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

[আরও পড়ুন: পাচারের আগেই সীমান্ত থেকে উদ্ধার বাঘের চামড়া, গ্রেপ্তার ২ ভুটানি]

নিহত বাকিবুল্লা মোল্লা ও আক্রান্ত মণিরুল ইসলাম দু’জনেই তৃণমূলের সক্রিয় কর্মী। জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে ইমারতী দ্রব্যের ব্যবসা করতেন আক্রান্ত মণিরুল ইসলাম। মঙ্গলবার সন্ধেয় ব্যবসার ৫০ হাজার টাকা নিয়ে ফিরছিলেন তিনি। অভিযোগ, সেই সময় তাঁর পথ আটকায় বাকিমুল্লা মোল্লা নামে ওই ব্যক্তি। টাকা নিয়ে চম্পট দেওয়ার উদ্দেশ্যে আচমকা ধারালো অস্ত্র নিয়ে মণিরুলের হাতে কোপ দেয় সে। রক্তাক্ত অবস্থায় চিৎকার শুরু করেন মণিরুল। আর্তনাদ শুনতে পেয়ে স্থানীয়রা ছুটে আসতেই পালানোর চেষ্টা করে অভিযুক্ত বাকিবুল্লা। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। তাড়া করে তাকে ধরে ফেলে স্থানীয়রা। এরপর ওই যুবককে বেধড়ক মারধর করে উত্তেজিত জনতা।

মারধরের জেরে অসুস্থ হয়ে পড়লে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বাকিবুল্লাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তাঁকে কলকাতার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করে। ইতিমধ্যেই গণপিটুনির ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, আক্রান্ত মণিরুল ইসলামের কাছে ৩৫ হাজার টাকা পেত মৃত বাকিবুল্লা মোল্লা। দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও সেই টাকা দিচ্ছিল না মণিরুল। সেই কারণেই খুনের ছক কষে বাকিবুল্লা। কিন্তু আদতেই কি অর্থের জন্যই খুনের চেষ্টা? নাকি এই ঘটনার পিছনে রাজনৈতিক স্বার্থ লুকিয়ে রয়েছে তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: তারুণ্যে জোর গেরুয়া শিবিরের, কাছের পরিবর্তে কাজের লোক খুঁজছে রাজ্য বিজেপি]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং