১ আশ্বিন  ১৪২৫  মঙ্গলবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮  |  পুজোর বাকি আর ২৮ দিন

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও রাশিয়ায় মহারণ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রঞ্জন মহাপাত্র, কাঁথি: বাঙালির ছুটি মানেই দি-পু-দা। আর এই দি-পু-দা হল দিঘা, পুরি এবং দার্জিলিং। তবে অশান্তির পর পাহাড় থেকে মুখ ফিরিয়েছেন ভ্রমণপিপাসু মানুষ। সেই ভিড় পৌঁছেছে দিঘা ও পুরীর সৈকতে। বছরে দিঘায় একাধিকবার যাওয়ার লোকের অভাব নেই। যারা একটু রোমাঞ্চ কিংবা অন্যস্বাদের খোঁজ চান, তাদের জন্য বর্ষশেষের ঠিকানা হতে পারে দিঘা। চেনা দিঘাকে এবার একটু অন্যরকমভাবে চিনুন। আমাদের বিশেষ সেগমেন্ট টোটোয় অচেনা দিঘাকে নিয়ে নানা কথা।

TOTO-DIGHA

[শিকেয় সরকারি সুবিধা, অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবাতেও দেদার কালোবাজারি]

জমিয়ে শীত পড়েনি বলে অনেকেই আক্ষেপ করছেন। অনেকে বেড়াতে যাব যাব করেও পিছিয়ে এসেছেন। তবে বড়দিন ও বর্ষবরণের ছুটির দিনগুলিতে দিঘাকে অন্যভাবে দেখতে পারেন। সৈকত শহরকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ২০ডিসেম্বর থেকে শুরু হতে চলেছে সৈকত উৎসব। চলবে ২৬ডিসেম্বর পর্যন্ত। এই ৬দিনের মেলায় সৈকত উৎসবের পাশাপাশি থাকছে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের জন্যে সবলা মেলা, জেলা বইমেলা। সেইসঙ্গে সৈকত উৎসবের সূচনায় কলকাতা থেকে দিঘা পর্যন্ত সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ কর্মসূচি হিসাবে হবে বাইক ব়্যালি। দিঘার সৈকতে ৫ হাজার মহিলার শঙ্খধ্বনিতে তাদের বরণ করা হবে।

TOTO-DIGHA.jpg2

[কলকাতা ও লন্ডনের আপাত মিল তুলিতে ধরলেন দু’দেশের শিল্পীরা]

এ গেল উৎসবের সূচনার কথা। কখনও দিঘায় গেলে হোটেলের বাইরে থাকার কথা ভেবেছেন? এবার সেই সুযোগ মিলবে। বেড়াতে গেলে যারা একটু অ্যাডভেঞ্চার বা অন্য স্বাদের খোঁজ করেন তাদের জন্য সমুদ্রপাড়ে থাকছে তাঁবু। যেখানে খাওয়া-দাওয়া, বিশ্রাম এমনকী রাত্রিবাসেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে। চমকের এখানেই শেষ নয়। বিশালাকার হট বেলুনে চেপে সমুদ্র দর্শনেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে সৈকত উৎসবে। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক স্তরে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে গোয়ার আদলে দিঘায়  ‘উইন্টার কার্নিভ্যাল–২০১৭’ র আয়োজন করা হয়েছে। বড়দিন ও বর্ষবিদায়ের ছুটিকে কেন্দ্র করেই এমন কার্নিভালের উদ্যোগ। ২৩ ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়ে চলবে ৩১ডিসেম্বর পর্যন্ত। ৯ দিনের এই কার্নিভালে থাকছে রেড কার্পেট, তানুরা ডান্স, ক্রিয়েটিভ ডান্স, অ্যানি আহমেদ কনর্সাট, ডিজে, ফায়ার ডান্স, ক্যান ক্যান ডান্স, ড্রাগন ডান্স, ফায়ার ডান্স, রাশিয়ান কার্নিভ্যাল শো, শান্তা ডান্স, বেলে ডান্স, ফ্যাশন শো, ডিজে জুলিয়া ব্লিস, রাশিয়ান ব্যালেট, রাশিয়ান ডান্স, সঙ্গীতশিল্পী অনুপম রায়, সোমলতা, ফসিলস-সহ একাধিক জাতীয় ও আন্তর্জাতিক স্তরের শিল্পীদের সম্মিলিত অনুষ্ঠান।

[শহরের রাজপথ সাজবে রঙিন আলপনায়, পুরসভার বেনজির উদ্যোগ]

দিঘা–শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের সহযোগিতায় লা–ফিয়েস্তিয়া নামের সংস্থা কার্নিভালের আয়োজক। নিউ দিঘার পুলিশ হলিডে হোমের মাঠে অনুষ্ঠিত হবে এই কার্নিভাল। অনুষ্ঠানের দিনগুলিতে পৃথক পৃথক অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা থাকছে। টিকিটের বিনিময়ে এই অনুষ্ঠান দেখার সুযোগ পাবেন পর্যটকরা। নাচ-গানের জমাটি ব্যবস্থার পাশাপাশি থাকছে ওই টিকিটে নৈশভোজের ব্যবস্থা। সেইসঙ্গে ৩১ডিসেম্বর রাতে বর্ষবরণের অনুষ্ঠানও রাখা হয়েছে। মূলত দিঘাকে দেশিয় ও বিদেশি পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় করে তুলতেই এমন উদ্যোগ নিয়েছে দিঘা–শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদ। আর এই দু’ই উৎসবকে কেন্দ্র করে দিঘা জুড়ে শুরু হয়েছে চরম ব্যস্ততা। সেইসঙ্গে দিঘাকে সাজিয়ে তোলার কাজ চলছে জোর কদমে। দিঘা-শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের সদস্য দেবব্রত দাস বলেন, দিঘা, শংকরপুর, মন্দারমণি সমুদ্রপাড়ে সৈকত উৎসবের পাশাপাশি উইন্টার কার্নিভালের আয়োজন করা হয়েছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিঘাকে আন্তর্জাতিক স্তরে পৌঁছানোর পরিকল্পনা নিয়ে নতুন প্রকল্পের উদ্যোগ নিয়েছেন। তাঁর সেই পরিকল্পনাকে এই উৎসবগুলি আন্তর্জাতিক স্তরে পৌঁছাতে সহযোগিতা করবে। অতএব দিঘা তৈরি, আপনি ট্রেন বা বাসের টিকিট কেটে রাখুন। দেরি হলেই তাঁবুতে থাকার আনন্দ ফসকে যেতে পারে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং