২৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: পুলিশের জালে অবশেষে ধরা পড়ল দুই জাল চিকিৎসক। মঙ্গলবার রাতে দুর্গাপুর শহরের দুই প্রান্ত থেকে এই দুই হাতুড়ে ডাক্তারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ধৃত দুই ভুয়ো চিকিৎসক ছবিলাল ঠাকরি ও সত্যরঞ্জন সর। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দুর্গাপুরের আমরাই ও রঘুনাথপুর এলাকায় দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে সত্যরঞ্জন নামে ওই ভুয়ো চিকিৎসক রোগী দেখছিলেন। ২০১৭ সালের ২১ জুন তারিখে প্রশাসনের কাছে সত্যরঞ্জনের ভুয়ো ডিগ্রি নিয়ে একটি অভিযোগ জমা পড়ে। অভিযোগ পেয়েই তদন্ত শুরু করে প্রশাসন। তদন্তে এই দুই চিকিৎসকের কাছ থেকে উপযুক্ত শিক্ষাগত যোগ্যতা সম্পর্কে কোনও নথিই পায়নি প্রশাসনের তদন্তকারী আধিকারিকরা। এছাড়াও তাদের চিকিৎসা পদ্ধতি নিয়েও বেশ কিছু অসঙ্গতি নজরে আসে আধিকারিকদের। তারপরই পুলিশের কাছে এই দুই চিকিৎসকের নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়। এর আগে ২০১৭ সালেও ইস্পাত নগরীর সি জোন এলাকায় চেম্বার খুলে বসা ছবিলাল ঠাকরি নামে আরেক ভুয়ো চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছিল। এরপর ছবিলালও দীর্ঘদিন এলাকা থেকে উধাও হয়ে যায়। এলাকা ছাড়া হয়ে যায় ওই দুই ভুয়ো চিকিৎসক। কিন্তু স্থানীয়দের অভিযোগ, মাঝে মধ্যে সত্যরঞ্জনকে এলাকায় দেখা গেলেও পুলিশ তার বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। 

[আরও পড়ুন: প্রসবের সময় কুকুরকে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় নয়া মোড়, গ্রেপ্তার অভিযুক্ত মহিলা]

মঙ্গলবার সন্ধেয় দুর্গাপুর থানার পুলিশ খবর পায় ওই দুই ভুয়া চিকিৎসককে ফের এলাকায় দেখা গিয়েছে। এরপরই পুলিশ তাদের ডেরায় হানা দিয়ে ইস্পাতনগরীর রঘুনাথপুর থেকে সত্যরঞ্জন ও সি জোন এলাকা থেকে ছবিলালকে গ্রেপ্তার করে।বুধবার ধৃত দুই ভুয়ো চিকিৎসককে দুর্গাপুর মহকুমা আদালতে তোলা হয়। বিচারক ধৃতদের সাত দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশের ডিসি-১ (পূর্ব) অভিষেক গুপ্তা জানান,“ দীর্ঘদিন ধরেই পলাতক ছিলেন এই দুই ভুয়ো চিকিৎসক। তাদের বিরুদ্ধে জাল ডিগ্রি সহ একাধিক অভিযোগ ছিল।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং