BREAKING NEWS

১৯ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ৪ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

এলাকা দখল নিয়ে দুই কিন্নর গোষ্ঠীর সংঘর্ষ, ধারালো অস্ত্রের ঘায়ে গুরুতর জখম ১

Published by: Sayani Sen |    Posted: November 18, 2019 8:17 pm|    Updated: November 18, 2019 8:17 pm

An Images

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ড হারবার: এলাকা দখলের লড়াইকে কেন্দ্র করে  দুই কিন্নর গোষ্ঠীর সংঘর্ষে উত্তপ্ত  দক্ষিণ ২৪ পরগনার মহেশতলার নুঙ্গি। দু’পক্ষই মধ্যে প্রথমে বচসা এবং পরে হাতাহাতিতে জড়িয়ে হয়। ধারালো অস্ত্রের ঘায়ে জখম হয়েছেন এক কিন্নর। আশঙ্কাজনক অবস্থায় আহত ওই কিন্নরকে স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে।

মহেশতলার নুঙ্গি মোড় এলাকা কাদের দখলে থাকবে, তা নিয়ে বিবাদ চলছিল। সোমবার তা রূপ নিল রক্তারক্তি কাণ্ডের। এদিন দু’পক্ষের মধ্যে বচসা লেগে যায়। পরে তাঁরা জড়িয়ে পড়েন হাতাহাতিতেও। ঝামেলা মিটলে এক গোষ্ঠী থানায় অভিযোগ জানাতে যাচ্ছিল। অভিযোগ, সেই সময় পথেই বিরুদ্ধ গোষ্ঠী ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাঁদের উপর হামলা চালায়। ধারালো অস্ত্রের কোপে নেহা কিন্নর নামে একজন গুরুতর জখম হয়েছেন। অত্যন্ত সংকটজনক অবস্থায় তাঁকে মহেশতলা পুরসভার হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। 

[আরও পড়ুন: ‘শহরজুড়ে মুখ্যমন্ত্রীর কাটআউট, আমার দেখেছেন?’, ফের অভিমানী রাজ্যপাল]

বাংলাদেশ থেকে আসা একদল কিন্নর বেশ কয়েকদিন ধরে মহেশতলা পুর এলাকায় ব্যবসা চালাচ্ছিল। এদিকে ওই এলাকায় কাজ করা বিটন গোষ্ঠীর কিন্নররা স্বাভাবিকভাবেই তা মেনে নিতে পারেননি। দু’পক্ষের মধ্যে এ নিয়ে বাকবিতণ্ডা চলছিল। বিটন গোষ্ঠীর বিটন কিন্নর জানিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে আসা ওই কিন্নরদল বেআইনিভাবে তাঁদের এলাকায় ব্যবসা চালাচ্ছিল। প্রতিবাদ করলে তাঁদেরকে খুনের হুমকিও দিত ওই বাংলাদেশি কিন্নরের দল। এদিন তাঁরা যখন এলাকায় বাড়ি বাড়ি ঘুরে নবজাতকদের  খবর নিচ্ছিলেন সেই সময় একটি গাড়িতে আসা বাংলাদেশি কিন্নরের দল হঠাৎই তাঁদের উপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে চড়াও হয়। পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনায় রবীন্দ্রনগর থানা এলাকা থেকে গাড়ির চালক-সহ পাঁচ বাংলাদেশি কিন্নরকে আটক করা হয়েছে। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement