BREAKING NEWS

৩১ আশ্বিন  ১৪২৮  সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মালগাড়ির চালকের আসনে ২ মহিলা, বর্ধমানে রেলের নতুন প্রকল্পের সূচনাতেই ইতিহাস

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 5, 2020 1:44 pm|    Updated: March 5, 2020 1:44 pm

Two women made history by driving Goods train in Burdwan

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: নারীদের সাফল্যের তালিকা দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে। এবার তাতে সংযোজিত হল মালগাড়ির স্টিয়ারিংয়ের নিয়ন্ত্রণ নেওয়া। বর্ধমানে ইলেকট্রিক লোকো শেডের উদ্বোধনের দিনই দুই মহিলার হাত ধরে তৈরি হল ইতিহাস। প্রথমবার কোনও মহিলা পাইলট বিদ্যুৎচালিত ইঞ্জিনের মালগাড়ি চালালেন এখান থেকে। বুধবার আর এই ঘটনার সাক্ষী রইলেন পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজার সুনীত শর্মা, হাওড়ার ডিভিশনাল রেলওয়ে ম্যানেজার ইশাক খান-সহ রেলের পদস্থ আধিকারিকরা।

BDN-lady-driver-1

রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্ধমানের এই ইলেকট্রিক লোকো শেড ভারতীয় রেলে প্রথম হল যেখানে সর্বোচ্চ সংখ্যক তিন ফেজের বৈদ্যুতিক ইঞ্জিন চলাচল করানো হবে। পাশাপাশি, পূর্ব রেলের মধ্যে প্রথম বর্ধমানের ৩ ফেজের মালগাড়ি ইঞ্জিন চলাচল ও রক্ষণাবেক্ষণ করানো যাবে। রেলের ফেসবুক পেজ ও টুইটার হ্যান্ডলে এই দিনটিকে পূর্ব রেলের ‘ঐতিহাসিক দিন’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: মালদহে গণবিবাহের আসরে মুখ্যমন্ত্রী, পা মেলালেন আদিবাসী নাচে]

রেলের মহিলা শক্তি বলা হয়ে থাকে মহিলা কর্মীদের। বর্ধমান থেকে সেই মহিলা শক্তির অন্যতম মালগাড়ির লোকো পাইলট (চালক) মিস পুষ্পা ও অ্যাসিস্ট্যান্ট লোকো পাইলট (সহ চালক) মিস বর্ষার নিয়ন্ত্রণে ছিল মালগাড়ির ইঞ্জিন। তাঁরাই চালিয়ে নিয়ে গেলেন গাড়িটি। পতাকা নেড়ে যার সূচনা করেন পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজার সুনীত শর্মা। বুধবার বর্ধমান স্টেশন পরিদর্শনে এসেছিলেন তিনি। একইসঙ্গে বেশ কিছু প্রকল্পের উদ্বোধন ও সূচনা করেছেন জিএম। জেনারেল ম্যানেজার সুনীত শর্মা জানান, বর্ধমানে ডিজেল লোকো শেড ছিল। এখন সেখানে ইলেকট্রিক লোকো শেডও করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: চক্ষু চিকিৎসার জন্য সাংসদ মিমি চক্রবর্তীর উদ্যোগ, বারুইপুর হাসপাতালে চালু নয়া পরিষেবা]

রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্ধমানের এই ডিজেল শেড এবার ৫০ বছরে পদার্পণ করেছে। আর সেই সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষে সেখানে ইলেকট্রিক লোকো শেডও করা হল। ফলে এখানে এখন থেকে ডিজেল ইঞ্জিনের পাশাপাশি, ইলেকট্রিক ইঞ্জিনের রক্ষণাবেক্ষণ এবং অন্যান্য কাজ হবে সহজে। বিশেষ করে মালগাড়ির ইলেকট্রিক ইঞ্জিনের। নারী দিবসে প্রাক্কালে বর্ধমানে দুই নারীর হাত ধরে মালগাড়ির গতিলাভ গর্বের বিষয়ই বটে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement