৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: এবার চূড়ান্ত অপরিচ্ছন্নতা ও অব্যবস্থার ছবি দেখা গেল দেবেন মাহাতো সদর হাসপাতালে। রান্নাঘরে আবর্জনা ভরতি। দুর্গন্ধে জেরবার রোগীরাও। যদিও এই ছবি ধরা পড়তেই তড়িঘড়ি রোগী কল্যাণ সমিতির বৈঠক ডাকা হয়েছে। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন জেলাশাসক।

রান্নাঘরে ঢুকতেই নজরে পড়বে সাজানো পচা কুমড়ো। কোথাও আবার পড়ে রয়েছে পঁচা পেপে। রান্নাঘরের কোনায় কোনায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে আবর্জনার স্তূপ। দুর্গন্ধে টেকা দায়। আর এই পরিস্থিতিতেই দিনের পর দিন রান্না হচ্ছে পুরুলিয়ার দেবেন মাহাতো সদর হাসপাতালে। খবর প্রকাশ্যে আসতেই নড়েচড়ে বসেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসন। তড়িঘড়ি আয়োজন করা হয়েছে রোগী কল্যাণ সমিতির বৈঠকের। মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো, জেলাশাসক রাহুল মজুমদার, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের উপস্থিতিতে ওই বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে অবিলম্বে হাসপাতালের চেহারা পালটে ফেলা হবে। জানা গিয়েছে, হাসপাতালের হাল ফেরাতে ২ টি সংস্থার সাহায্য নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ওই সংস্থার কর্মীরা সপ্তাহে ২ বার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় সচেতনতার প্রচার চালাবে।

প্রসঙ্গত নিয়ম মেনে বরাবর হাসপাতাল পরিদর্শনে যান জেলাশাসক। কিছুদিন আগে দেবেন মাহাতো সদর হাসপাতালে গিয়ে তিনি দেখেছিলেন হাসপাতালের প্যাথলজির অবস্থা বেশ খারাপ। তাঁর নির্দেশে হাল ফেরে প্যাথলজির। এরপর আরও একবার পরিদর্শনে গিয়েছিলেন জেলাশাসক। সেই সময়ও সবকিছুই স্বাভাবিকই ছিল। তার কয়েকদিনের ব্যবধানে হাসপাতালের এই ছবি দেখে হতবাক খোদ জেলাশাসকও। ঘটনার দায় ঝেড়ে ফেলতে চাইছেন হাসপাতাল সুপার। কিছুই জানেন না তিনি, এমনটাই দাবি তাঁর। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাসও দিয়েছেন তিনি। চিকিৎসাধীন রোগীদের প্রতিদিনের খাওয়া খরচ বাবদ প্রচুর টাকা বরাদ্দ করা হয়। যাতে হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে আসা রোগীরা পুষ্টিকর খাবার পায়। তা সত্ত্বেও কেন পচা ও অস্বাস্থ্যকর খাবার পড়ছে রোগীদের পাতে? প্রশ্ন তুলছেন রোগীর পরিবার।

ছবি: সুনীতা সিং

[আরও পড়ুন:বিক্ষোভ কর্মসূচিতে বাধা, পুলিশ-বিজেপি সংঘর্ষে রণক্ষেত্র শিলিগুড়ি]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং