BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সরস্বতীর আরাধনায় বিদ্যাসাগরকে শ্রদ্ধা জানাল বর্ধমানের এই পুজো মণ্ডপ

Published by: Bishakha Pal |    Posted: January 28, 2020 7:39 pm|    Updated: January 28, 2020 9:08 pm

An Images

সৌরভ মাঝি, বর্ধমান: বিদ্যাদেবীর বরপুত্র বিদ্যাসাগর। বাঙালিকে বর্ণপরিচয়ের সঙ্গে পরিচিত করিয়েছিলেন ঈশ্বরচন্দ্র। বাঙালি বিদ্যার দেবী হিসেবে সরস্বতীকে পুজো করে। কিন্তু বাগদেবীর আরাধনায় বিদ্যাসাগরকেই বা বাদ দেওয়া যায় কীভাবে।

সেই ভাবনা থেকে মেমারির বাগদেবীর আরাধনায় ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরকে বিনম্র শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করা হচ্ছে। এবার বিদ্যাসাগরের জন্ম দ্বিশতবর্ষ পালিত হচ্ছে। তাই মেমারির সোনাপট্টির সুভাষ সংঘের সরস্বতী পুজোয় থিমের ভাবনাও সেই বিদ্যাসাগরকে সামনে রেখেই। প্রতিমা থেকে মণ্ডপসজ্জা, বিদ্যাসাগরময় হয়ে উঠছে সুভাষ সংঘের পুজো। বর্ণপচিয় তো বটেই, ঈশ্বরচন্দ্রের মূর্তিও ঠাঁই পাচ্ছে মণ্ডপে। মেমারির এই ক্লাবের প্রতিমা নিরঞ্জনে এলেও অভিনবত্বের স্বাদ পাবেন দর্শনার্থীরা। ভারতের বিভিন্ন প্রান্তের লোকসংস্কৃতি তুলে ধরা হবে সরস্বতী পুজো উপলক্ষে। বাগরুম্বা বোরোশিকলা নৃত্য, শ্রীখোল বাদ্য থেকে নাগঝম্পা বাজনা দেখার ও শোনার সুযোগ পাবেন দর্শনার্থীরা।

[ আরও পড়ুন: সরস্বতী পুজোর বাজারে আগুন, আকাশছোঁয়া ফল-সবজির দাম ]

পূর্ব বর্ধমান জেলায় কালনার সরস্বতী পুজো বিখ্যাত। কিন্তু সেখানকার পুজোর সঙ্গে এখন রীতিমত পাল্লা দিচ্ছে মেমারির বাগদেবীর আরাধনা। থিম থেকে মণ্ডপসজ্জা, মেমারি টেক্কা দিচ্ছে কালনাকে। আবার বিসর্জনের শোভাযাত্রাতেও গত কয়েকবছর ধরে অভিনবত্ব রাখছে মেমারির সুভাষ সংঘের সরস্বতী পুজো। এবারও যার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। ক্লাবের অন্যতম কর্তা সত্যজিৎ বৈরাগ্য জানান, গত ৭০ বছর ধরে তাঁরা বাগদেবীর পুজো করছেন। প্রতি বছরই পুজোয় তাঁরা ভারতের নানা জায়গার লোকসংগীত, লোকনৃত্যেরও আয়োজন করে থাকেন।

সত্যজিৎবাবু জানান, এবার বিদ্যাগরের জন্ম দ্বিশতবর্ষ। তিনি বলেন, “বিদ্যাসাগর না থাকলে আমাদের বর্ণ পরিচয় ঘটত না। অর্থাৎ আমাদের শিক্ষার শুরুতেই তিনি রয়েছেন। তাই তাঁর জন্মের দ্বিশতবর্ষে আমরা সরস্বতী বন্দনায় বিদ্যাসাগরকেও শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।” মণ্ডপসজ্জাতে বিদ্যাসাগরের কর্মজীবনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরা হচ্ছে। পাশাপাশি, বাগদেবীর বরপুত্র হিসেবে মণ্ডপেও রাখা হচ্ছে বিদ্যাসাগরের মূর্তি। বুধবার পুজো। আর শুক্রবার দুপুরে প্রতি বিসর্জনেও বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার আয়োজন থাকছে। অসমের বাগরুম্বা বোরোশিলা নৃত্যের আয়োজন করা হচ্ছে বিসর্জনের শোভাত্রায়। এছাড়া বর্ধমানের বিখ্যাত খোলবাদক হরেকৃষ্ণ হালদারের শিষ্যদের নৃত্য সহযোগে শ্রীখোল বাদ্য থাকছে। বাঁতুড়ার কাঁড়া সিং বাজনা ও নাগঝম্পা বাজনা থাকবে নিরঞ্জনের শোভাযাত্রায়।

[ আরও পড়ুন: কেমন আছে পরিবার? শান্তিনিকেতনে বসে চিন্তায় দিন কাটাচ্ছেন বিশ্বভারতীর চিনা পড়ুয়ারা ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement