BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

সংসদীয় মানচিত্রে ব্রাত্য নবদ্বীপ, ভোটের মরশুমে মনখারাপ এলাকাবাসীর

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: April 1, 2019 4:18 pm|    Updated: April 1, 2019 4:18 pm

Voters want constituency name as Nabadwip again

বিপ্লবচন্দ্র দত্ত, কৃষ্ণনগর: লোকসভা কেন্দ্রের নাম বদলে গিয়েছে। ভোটে এলেই মনখারাপ হয়ে যায় নদিয়ার নবদ্বীপ বিধানসভা এলাকার ভোটারদের। তাঁদের দাবি, রানাঘাট নয়, এই লোকসভা কেন্দ্রটির আগের নামই ফিরিয়ে আনা হোক। নাম বদলের দাবি জানিয়ে রাষ্ট্রপতি, রাজ্যপাল ও নির্বাচন কমিশনকে চিঠিও দিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। কিন্তু, দাবিপূরণ হওয়া তো দূর, চিঠির প্রাপ্তি স্বীকারও করা হয়নি বলে অভিযোগ।

[আরও পড়ুন:  প্রচারে বেরিয়ে গৃহস্থের হেঁশেলে খুন্তি নাড়লেন মমতাবালা, চায়ের আড্ডায় শান্তনু]

দেশ তখন সদ্য স্বাধীন হয়েছে। দেশভাগের সময়ে নবদ্বীপ-সহ নদিয়া জেলার একটি বড় অংশ তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। প্রতিবাদে গর্জে উঠেছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। আন্দোলনের চাপে ৪৭-র ১৭ আগস্ট ওই অংশটি ভারতের সঙ্গে যুক্ত করা হয়। শুধু তাই নয়, মহাপ্রভু চৈতন্যদেবের স্মৃতিবিজরিত জনপদ ও লাগোয়া এলাকাটি  ‘নবদ্বীপ জেলা’ নামে চিহ্নিত হয়। পরে জেলার নাম বদলে হয় নদিয়া। নবগঠিত জেলায় ছিল দু’টি লোকসভা কেন্দ্র। নবদ্বীপ আর শান্তিপুর। ১৯৫২ সালে প্রথম সাধারণ নির্বাচনের পর শান্তিপুর লোকসভা কেন্দ্রের অবলুপ্তি ঘটে। ১৯৬৭ সালে নদিয়া জেলায় দ্বিতীয় লোকসভা কেন্দ্রের স্বীকৃতি পায় কৃষ্ণনগর। তার আগে পর্যন্ত নবদ্বীপই ছিল জেলার একমাত্র লোকসভা কেন্দ্র। 

তখন এ রাজ্যে ক্ষমতায় বামেরা। ২০০৯ সালে সীমানা পুনর্বিন্যাস সময়ে নবদ্বীপ লোকসভা কেন্দ্রের নাম বদলে দেয় নির্বাচন কমিশন। এই লোকসভা কেন্দ্রের নতুন নাম হয় রানাঘাট। সেবছর রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রের প্রথম সাংসদ নির্বাচিত হন তৃণমূল কংগ্রেসের সুচারুরঞ্জন হালদার। ২০১৪ সালেও জেতেন এ রাজ্যের শাসকদলের প্রার্থী তাপস মণ্ডল। আর এবার লোকসভা ভোটে এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী রূপালী বিশ্বাস। কিন্তু, ঘটনা হল, প্রায় এক দশক পরেও লোকসভা কেন্দ্রের নাম বদল মেনে নিতে পারেননি নবদ্বীপ বিধানসভা এলাকার বাসিন্দারা।  নবদ্বীপ পুরাতত্ত্ব পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শান্তিরঞ্জন দেব বলেন, ‘চৈতন্যভূমি নবদ্বীপধাম একটি ঐতিহ্যমণ্ডিত স্থান। এখানে বৈষ্ণব, শৈব, শাক্ত, ইসলাম ও খ্রিস্টান সর্বধর্ম সমন্বয় ঘটেছিল। নবদ্বীপের মতো প্রাচীন জনপদ ভারতে বিশেষ নেই। আমাদের বিশ্বাস ছিল, স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি মেনে সংসদীয় মানচিত্রে ফের নবদ্বীপ নামটি ফিরবে। কিন্তু, এবার লোকসভা ভোটেও সেই আশা পূরণ হল না।’ 

[আরও পড়ুন: বারাবনিতে প্রচারে সাঁওতালি নৃত্যে কোমর দোলালেন মুনমুন সেন]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে