৩১ চৈত্র  ১৪২৭  বুধবার ১৪ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

Bengal Polls: ফের প্রচারে অভিনবত্ব, এবার খনিতে নেমে ভোটারদের অবাক করলেন সায়নী

Published by: Sulaya Singha |    Posted: March 26, 2021 9:32 pm|    Updated: March 26, 2021 9:41 pm

An Images

শেখর চন্দ্র, আসানসোল: তাঁর ভোট প্রচারের ধরন এখন চর্চার শীর্ষে। প্রচারের সব ভিডিও নিয়ে চলছে জোর আলোচনা। সেই সায়নী ঘোষের (Sayani Ghosh) ভোট প্রচারে ফের অভিনবত্ব চোখে পড়ল। এবার একেবারে খনির ভিতরে ঢুকে পড়লেন আসানসোল দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী।

জনসংযোগে বেরিয়ে ইসিএলের সাতগ্রাম এরিয়ার পিওর সিয়ারসোল খনির গর্ভে নেমে পড়েন সায়নী। প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি প্রার্থী (BJP Candidate) অগ্নিমিত্রা পল। যিনি আবার সায়নীকে ‘বহিরাগত’ তো বলেইছেন, ‘বাচ্চা মেয়ে’ বলেও কটাক্ষ করেছেন। কিন্তু এসবে ভ্রুক্ষেপ নেই অভিনেত্রীর। সকাল থেকে দুপুর, বিকেল পেরিয়ে সন্ধে পর্যন্ত নিজের কেন্দ্রে চরকি-পাক খেয়ে ভোটের প্রচার করছেন তিনি। তাঁর প্রচারের সঙ্গে তাল মেলাতে গিয়ে রীতিমতো হিমশিম খেতে হচ্ছে দলের কর্মীরাই। কিন্তু চৈত্র মাসের ঠা-ঠা রোদ্দুরেও প্রচারে কোনও ক্লান্তি নেই সায়নীর। আর এই ব্যাপারটাই তাঁকে নিয়ে এসেছে নিজের কেন্দ্রের সাধারণ মানুষের কাছাকাছি। আবার তাঁকে দেখা গিয়েছে দামোদর নদীর তীরে গোধূলি বেলায় একটু জিরোতে। ক্লান্তি দূর করার সেই দৃশ্য উপভোগের ছবি নিজেই শেয়ার করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। অনেকেই ইতিমধ্যে বলতে শুরু করেছেন, এই প্রার্থীর মধ্যে আর যাই হোক, আন্তরিকতার অন্তত ঘাটতি নেই। যেটা ভোটদাতাদের মন জয় করার ক্ষেত্রে ব্রহ্মাস্ত্র হয়ে উঠতে পারে।

[আরও পড়ুন: ‘নন্দীগ্রামে ঘুরছে বহিরাগত গুন্ডারা’, প্রমাণ-সহ কমিশনে অভিযোগ দায়ের তৃণমূলের]

প্রথমে যখন এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থীর (TMC Candidate) নাম ঘোষণা করা হয়েছিল, তখন অনেকেই কলকাতার অভিনেত্রীকে নিয়ে সংশয়ে ছিলেন। কিন্তু নিজের এনার্জি দিয়েই মন জয় করছেন তিনি। এরই মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সদস্যদের সঙ্গে কর্মী সম্মেলনও করেছেন। বেসুরো শিক্ষক নেতা অশোক রুদ্রকে দেখা গিয়েছে সেই বৈঠকে। অর্থাৎ কয়েকদিনের প্রচারেই সায়নী বুঝিয়ে দিতে পেরেছেন, এক পা টালিগঞ্জে রেখে অন্য পা আসানসোলে রাখতে তিনি আসেননি। রাজনীতিটা তিনি মন দিয়েই করতে চান। ফলে, ঝড়ের গতিতে নিজের কেন্দ্রের সব ভোটদাতার কাছে পৌঁছে যেতে চাইছেন।

কখনও তাঁকে দেখা যাচ্ছে দৌড়তে, কখনও আবার রাস্তার পাশে বসে পড়ে কারও সঙ্গে কথা বলতে। আবার কখনও গ্রামের পথে মাইলের পর মাইল পায়ে হেঁটে ঘুরছেন। অনেকেই এগিয়ে এসে জানাচ্ছেন নিজেদের সমস্যার কথা। তবে সবার মুখে দিনের শেষে একটাই কথা। তৃণমূল প্ৰার্থী যে সবার কাছে পৌঁছতে চাইছেন, সবার কথা শুনতে চাইছেন, এই ব্যাপারটাই মন ছুঁয়ে গিয়েছে। সায়নীর দাবি, তিনি নদীর স্রোতের মতো বাঁচতে চান। যেখানে গতি আছে আবার বিস্ময়ের বাঁকও রয়েছে।

[আরও পড়ুন: দিল্লিতে দু’দলের শীর্ষ নেতৃত্বের বৈঠকে কাটল জট, শান্তিপুর কংগ্রেসকেই ছাড়ল বামেরা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement