BREAKING NEWS

২২ বৈশাখ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ৬ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘শীতলকুচি নয়, জায়গায় জায়গায় দার্জিলিং হবে’, দিলীপকে পালটা অভিষেকের

Published by: Paramita Paul |    Posted: April 12, 2021 7:35 pm|    Updated: April 12, 2021 7:54 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শীতলকুচির ঘটনায় উত্তাল বঙ্গ রাজনীতি। একে অপরের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলছে। এর মাঝেই বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বলেছেন, “বাড়াবাড়ি করলে জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি হবে।” বিভিন্ন মহলে তুমুল সমালোচিত হয়েছে তাঁর মন্তব্য। এবার তাঁকে পালটা দিলেন তৃণমূলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বললেন, “শীতলকুচি নয়, জায়গায়-জায়গায় দার্জিলিং হবে।” উল্লেখ্য, কয়েকবছর আগে দার্জিলিংয়ে দিলীপ ঘোষের উপর হামলা হয়। দলীয় কর্মীদের বেধড়ক মারধর করা হয়। অভিষেকের হুঁশিয়ারি, বিজেপির রাজ্য সভাপতি নিজেকে না শুধরে নিলে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে এ ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে।

সামনে পঞ্চম দফার ভোট। তার আগে উত্তরবঙ্গে প্রচারে ঝড় তুলছেন যুব তৃণমূলের সভাপতি। সেই নির্বাচনী সভা থেকে অভিষেক এক হাত নিলেন দিলীপ ঘোষকে। পাশাপাশি ভাষা সংযত করারও পরামর্শ দেন তিনি। বলেন, “দিলীপ ঘোষ বলছেন, শীতলকুচির ঘটনা আরও ঘটবে। দিলীপবাবুকে অনুরোধ করব, ভাষা সংযত করুন। মার্জিত করুন। নিজের ভাষা পরিবর্তন করুন।” এর পরই বিজেপির রাজ্য সভাপতিকে অভিষেকের হুঁশিয়ারি, “বাংলায় শীতলকুচি আর হবে না, আপনার সঙ্গে জায়গায় জায়গায় দার্জিলিং হবে।”

[আরও পড়ুন : ‘শীতলকুচির মতো ঘটনা আর চাই না’, বির্তকের মাঝেই সুর নরম দিলীপ ঘোষের]

উল্লেখ্য, দিলীপ ঘোষকে বহিষ্কারের দাবিতে সরব হয়েছেন যুব তৃণমূলের সভাপতি তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। শীতলকুচির ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে দিলীপ ঘোষের ‘জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি’ মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করেন। বলেন, “প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলছি, যদি ওঁদের বিবেকবোধ থেকে থাকে, তবে আগামিকালই সাংবাদিক বৈঠক করে দিলীপ ঘোষকে বহিষ্কার করুন।” একটি সভায় সায়ন্তন বসু বলেছিলেন, “CRPF-কে বলব একদম বুক লক্ষ্য করে গুলি করতে।” এই মন্তব্যগুলির সঙ্গে নয়া সংযোজন রাহুল সিনহার বিতর্কিত বক্তব্য। বিজেপির এই অভিজ্ঞ নেতা বলেন, “শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনী ঠিক কাজ করেছে। তাদের উপর বোমা ছোঁড়া হচ্ছে। আবারও গোলমাল করলে এই জবাবই দেবে। আটজনকে গুলি করে মারা উচিত ছিল। কেন চারজনকে মারল? এর জন্য বাহিনীকেই শোকজ করা উচিত।” এদিন এই মন্তব্যেরও নিন্দা করেন অভিষেক।

[আরও পড়ুন : শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের কথা কেন বলেন না মমতা? বারাসতে প্রশ্ন মোদির]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement