১৪ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ভোটের ৪৮ ঘণ্টা আগে ১০ লক্ষ টাকা-সহ গ্রেপ্তার বিজেপির ৩ নেতা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 12, 2018 5:27 pm|    Updated: May 12, 2018 5:27 pm

WB panchayat polls: BJP leader held with Rs 10 lakh in Alipurduar

রাজকুমার কর্মকার, আলিপুরদুয়ার: ভোটের ৪৮ ঘণ্টা আগে ১০ লক্ষ নগদ টাকা-সহ গ্রেপ্তার তিন বিজেপি নেতা। ভোটারদের বিলি করার জন্য ওই টাকা নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল বলে ধৃতরা জেরায় স্বীকার করে নিয়েছে বলে দাবি পুলিশের। ধৃতরা হল বিজেপির জলপাইগুড়ির সাধারণ সম্পাদক শুভঙ্কর চক্রবর্তী ও আলিপুরদুয়ারের জেলা সম্পাদক রাজু ঘোষ ও বিপ্লব সরকার। শনিবার সকালে অলিপুরদুয়ারের একটি হোটেলের সামনে থেকে একটি লাল গাড়ি থেকে অভিযুক্তদের ওই টাকা-সহ গ্রেপ্তার করে পুলিশ৷

জানা গিয়েছে, জেলা সফরে এসে অলিপুরদুয়ারের ওই হোটেলে উঠেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ আলিপুরদুয়ারের জেলা পুলিশ সুপার আভারু রবীন্দ্রনাথ জানিয়েছেন, বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের ঘনিষ্ঠ প্রবাল রাহা নামে জলপাইগুড়ির এক বিজেপি নেতা ওই টাকা পাঠায়। আলিপুরদুয়ারে ভোটারদের মধ্যে তা বিলি করার কথা ছিল। অতুল সুব্বা নামে আরেক বিজেপি নেতাকে বিলির জন্য তিন লক্ষ টাকা দেওয়া হয়। তার বাড়িতেও তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ। ওই টাকা আলিপুরদুয়ারের জেলা সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদের কাছে পাঠানোর কথা ছিল৷

গোপন সূত্রে খবর পেয়ে শনিবার সকালে পুলিশ এই অভিযান চালায়৷ জলপাইগুড়ি থেকে এই গাড়িটি আলিপুরদুয়ারে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল বলে আগেই জানতে পেরেছে পুলিশ৷ বিশেষ সূত্রে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে পুলিশ গাড়ির চালককে জেরা করে৷ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গাড়ির চালক বিপ্লব সরকারকে আটক করে পুলিশ৷ একই সঙ্গে এই ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে বিজেপি নেতা রাজু ঘোষকে আটক করে পুলিশ৷ ভোট শুরুর ৪৮ ঘণ্টা আগে লক্ষাধিক টাকা-সহ বিজেপি কর্মী গ্রেপ্তারের ঘটনায় জেলাজুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

বিজেপির দাবি, পরিকল্পনা করে ভোটের আগে এই মিথ্যা মামলায় বিজেপি কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিজেপির জেলা নেতা কুশল চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘এটি দলীয় অর্থ। আলিপুরদুয়ারে দলের জেলা কার্যালয় নির্মাণের কাজ চলছে৷ সেই নির্মাণের কাজে এই অর্থ ব্যবহার করার কথা ছিল৷ এই অর্থের সঙ্গে ভোটের খরচের কোন যোগ নেই৷’’

পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, ধৃতরা জেরার মুখে স্বীকার করে নিয়েছে ভোটারদের বিলি করার জন্য ওই টাকা তারা নিয়ে যাচ্ছিল। ধৃতদের বয়ান ও স্বীকারোক্তির ভিডিও রেকর্ড করে রাজ্য নির্বাচন কমিশনারের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন পুলিশ সুপার।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে