BREAKING NEWS

২৯ চৈত্র  ১৪২৭  সোমবার ১২ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ডালখোলায় বিজেপি কর্মীর রহস্যমৃত্যু, খুন করে গাছে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 5, 2021 6:56 pm|    Updated: April 5, 2021 6:56 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

শংকরকুমার রায়, রায়গঞ্জ: ভোটের মরশুমে বিজেপি (BJP) কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল উত্তর দিনাজপুরের চাকুলিয়ায়। বিজেপির অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই ওই যুবককে খুন করে গাছে ঝুলিয়ে দিয়েছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত এলাকা। 

মৃত যুবকের নাম সত্যজিৎ সিংহ(২৫)। মুদি দোকান রয়েছে তাঁর। সোমবার উত্তর দিনাজপুরের (North Dinjapur) ডালখোলা থানার চাকুলিয়া বিধানসভার বেগুয়া এলাকায় বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে একটি গাছ থেকে উদ্ধার হয় সত্যজিতের ঝুলন্ত দেহ। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন বিজেপি কর্মীরা। দেহ উদ্ধারের সময় বিজেপির কর্মীদের বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয় পুলিশকে। ঘটনাস্থলে যান রায়গঞ্জের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী। তাঁর অভিযোগ, বিজেপির সক্রিয় কর্মী ওই যুবককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় ও পিঠে আঘাত করে খুন করা হয়। তারপর গলায় জামার ফাঁস লাগিয়ে গাছে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। চাকুলিয়া বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ডাক্তার সচিন প্রসাদ বলেন,” আমি ডাক্তার হিসাবে বলতে পারি, ওই যুবককে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে, মৃতের শরীরে বিভিন্ন আঘাতের চিহ্ন দেখে তা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে।”

[আরও পড়ুন: গভীর রাতে কৈখালি ও লেকটাউন বিজেপি পার্টি অফিসে হামলা, কাঠগড়ায় তৃণমূল]

অন্যদিকে ইসলামপুরের পুলিশ সুপার সচিন মক্কার বলেন, “বিজেপির কর্মী কিনা জানা নেই। তবে দেহ ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজের হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্টের আগে কিছু বলা সম্ভব নয়। তবে তদন্ত শুরু হয়েছে।” মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার বেলা দেড়টা থেকে সত্যজিৎ নিখোঁজ ছিলেন। অনেক খোঁজ খবর করলেও রাত পর্যন্ত হদিশ মেলেনি। শেষপর্যন্ত এদিন একটি গাছে তাঁর ঝুলন্ত দেহ মেলে। মৃতের ভাই নিলয় সিংহের অভিযোগ, “দাদাকে পরিকল্পিতভাবে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা অন্য কোনও জায়গায় খুন করে গাছে ঝুলিয়ে রেখে দিয়েছে।” তবে তৃণমূলের জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়ালের দাবি, “এই মৃত্যুর সঙ্গে তাঁদের দলের কোনও সম্পর্ক নেই। ভোটে সাধারণ মানুষজনদের সহানুভুতি পাওয়ার জন্য খুনের তত্ত্ব সাজানো হচ্ছে। পুলিশ ঠিকমতো তদন্ত করলেই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।”

[আরও পড়ুন: ‘ফুরফুরা শরিফকে সম্মান করি, কিন্তু এটা অপদার্থ’, নাম না করে আব্বাসকে তোপ মমতার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement