BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৯ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ভ্যাকসিন পৌঁছে দিতে একসঙ্গে কাজ করব, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে আশ্বাস মমতার

Published by: Sayani Sen |    Posted: November 24, 2020 2:47 pm|    Updated: November 24, 2020 3:05 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এখনও ভ্যাকসিন আসেনি। তাই করোনা সংক্রমণ রোখা সম্ভব হয়নি। এই পরিস্থিতিতে বাংলা-সহ আটটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। ওই বৈঠকেই সকলের ভ্যাকসিন পৌঁছে দিতে একযোগে কাজের আশ্বাস দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলায় সংক্রমণ যথেষ্ট নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলেও জানান তিনি। কেন্দ্রের কাছে বকেয়া পাওনা নিয়েও সুর চড়ালেন তিনি।

এর আগে সোমবারই বাঁকুড়া প্রশাসনিক সভামঞ্চ থেকে ভ্যাকসিন নিয়ে সুর চড়ান মুখ্যমন্ত্রী। কেন এত দেরি হচ্ছে সেই প্রশ্ন তুলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। ঠিক তার পরেরদিন অর্থাৎ মঙ্গলবার মোদির সঙ্গে বৈঠকে দ্রুত ভ্যাকসিনের দাবি জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। যত দ্রুত ভ্যাকসিন আনার জন্য কেন্দ্র অথবা যেকোনও মধ্যস্থতাকারীদের সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করতে আগ্রহ প্রকাশের কথাও বলেন বাংলার প্রশাসনিক প্রধান।

[আরও পড়ুন: মানভঞ্জনের চেষ্টা নাকি সৌজন্য বিনিময়? মিহির গোস্বামী ও রবীন্দ্রনাথ ঘোষের সাক্ষাতে জল্পনা]

উৎসবের মরশুমের পর রাজ্যের করোনা (Coronavirus) পরিস্থিতি হাতের বাইরে যেতে পারে বলেই আশঙ্কা করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। বাংলায় কোভিড পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিরোধীরাও। তবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকে বিরোধীদের তোলা অভিযোগ খারিজ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানান, দুর্গাপুজো, কালীপুজো, ছটপুজো নির্দিষ্ট কোভিড বিধি মেনে পালন করা হয়েছে। তাই তারপর সংক্রমণের গ্রাফের বিশেষ হেরফের হয়নি। আক্রান্তের সংখ্যা সামান্য বাড়লেও তা কখনই হাতের নাগালের বাইরে চলে যায়নি। বাংলায় ঊর্ধ্বমুখী সুস্থতার হারের কথাও তুলে ধরেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভাইরাসের মোকাবিলায় আশাকর্মীরা ভাল কাজ করছেন বলেও প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রশংসা করেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠক হলেও আর্থিক বঞ্চনার অভিযোগে আরও একবার সুর চড়ান মুখ্যমন্ত্রী। বকেয়া অর্থ ফেরতের দাবিতেও সরব হন তিনি।

Mamata Banerjee

[আরও পড়ুন: ছত্রধর মাহাতোকে ‘বোকা’ বানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী, দাবি দিলীপ ঘোষের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement