BREAKING NEWS

১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

দলীয় প্রতীক পেয়ে কে নিশ্চিত করবে জয়? কাটোয়ায় বিড়ম্বনায় তৃণমূল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 14, 2018 5:28 pm|    Updated: April 14, 2018 8:56 pm

West Bengal panchayar polls: Jostle for candidature haunts TMC

ধীমান রায়, কাটোয়া: আসান মাত্র নয়৷ মাত্র ন’টা আসনে জন্য তৃণমূলের প্রার্থী সংখ্যা ১৬ জন৷ কিন্তু, কে পাবেন দলীয় প্রতীক? টিকিট বিল করাটাই এখন বড় চ্যালেজ্ঞ তৃণমূলের৷

প্রার্থীদের মধ্যে শেষ পর্যন্ত কাদের প্রতীক দেওয়া হবে, তা নিয়ে চিন্তিত ভাতারের আমারুন ১ পঞ্চায়েতে তৃণমূল ব্লক নেতৃত্ব৷ এই পঞ্চায়েতে সব আসনে বিরোধী প্রার্থী না থাকলেও বিগত দিনের ব্যর্থতা নিয়ে ভাবাচ্ছে শাসকদলের নেতাদের৷ তাই আমারুন ১ পঞ্চায়েতের ভোট নিয়ে বাড়তি চিন্তায় শাসকদল৷

ভাতারের আমারুন পঞ্চায়েতে মোট আসন সংখ্যা নয়টি৷ ২০১৩ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনে এই পঞ্চায়েতে তৃণমূল জিতেছিল ছ’টি আসনে৷ বাকি তিনটির মধ্যে নির্দল দুটি ও বামেরা একটি আসনে জয়ী হয়৷ বোর্ড গঠন করে শাসক তৃণমূল৷ কিন্তু বিগত পঞ্চায়েত ভোটের মাস ছয়েক পর থেকেই পঞ্চায়েত প্রধানের সঙ্গে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয় বাকি পাঁচ দলীয় সদস্যের৷ তার জেরে পঞ্চায়েতে অনাস্থা আনা হয়েছিল৷

কিন্তু দলীয় নেতৃত্বের চাপে অনাস্থা প্রত্যাহার হলেও পঞ্চায়েত পরিচালনা নিয়ে শুরু হয় তুমুল বিবাদ৷ বেশ কয়েকদফা সংঘর্ষও হয়৷ মাঝে গন্ডগোলের জেরে চার মাস পঞ্চায়েতে তালা পড়ে যায়৷ পরবর্তীকালে কোনও দিনই গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব মেটেনি৷ আড়াই বছর পর ফের পঞ্চায়েতে অনাস্থা আনা হয়েছিল৷ পরে দুপক্ষই মামলা মোকদ্দমায় জড়িয়ে পড়ে৷ শেষে শাসকদলের ছ’সদস্যেরই সদস্যপদ বাতিল হয়ে যায়৷ বস্তুতপক্ষে ২০১৩ সালে নির্বাচনের পর থেকে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে আমারুন ১ পঞ্চায়েতের কাজকর্ম কার্যত শিকেয় উঠেছিল৷ এরই মধ্যে ফের পঞ্চায়েত ভোট চলে আসে৷

একদিকে পঞ্চায়েত পরিচালনা নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রচুর ক্ষোভ রয়েছে৷ তারপর রয়েছে দলের মধ্যে গোষ্ঠীদ্বন্দ৷ তার জেরে এই পঞ্চায়েত নিয়ে বেকায়দায় শাসকদলের নেতারা৷ জানা গিয়েছে, পঞ্চায়েতের ন’টি আসনের মধ্যে তৃণমূলের হয়ে মনোনয়ন জমা করেছেন ১৬ জন৷ সিপিএম করেছে ছ’টি আসনে৷ একটি আসনে রয়েছে বিজেপি প্রার্থীর৷ শোনা যাচ্ছে, বিজেপি প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিতে পারেন৷ তবে, শাসকদলের হয়ে শেষ পর্যন্ত কারা টিকিট পাবে, এনিয়ে রয়েছে চাপানউতোর৷

জানা গিয়েছে, গতবারের তৃণমূলের নির্বাচিত সদস্যদের মধ্যে এবার দু’জন মনোনয়ন জমা করেছেন৷ বাকিরা নতুন প্রার্থী৷ তবে, শেষ পর্যন্ত দলের বাকিরা মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেবেন নাকি গোঁজ হিসাবে লড়বেন এটাই এখন লাখ টাকার প্রশ্ন৷ তৃণমূলের এক ব্লক নেতা বলেন, ওই পঞ্চায়েতে দলের প্রার্থী বাছাই নিয়ে সমস্যা রয়েছে৷ তবে আশা করছি দলের সিদ্ধান্ত সবাই মেনে নেবে৷ এনিয়ে কথাবার্তা চলছে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে