BREAKING NEWS

১০ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ২৪ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

আজও রাজ্যজুড়ে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা, উত্তরের জেলাগুলিতে ভারী বর্ষণের ইঙ্গিত

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 2, 2018 9:36 am|    Updated: June 2, 2018 10:09 am

West Bengal to witness light, moderate rainfall: MeT

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শুক্রবার একদিনের বৃষ্টিতে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বিশেষ করে কলকাতা শহর ও পার্শ্ববর্তী এলাকার বেশ কিছু জায়গায় জল জমে চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছিল। রাস্তাঘাটে জল জমে রীতিমতো নাজেহাল হতে হয় অফিস ফেরত নিত্যযাত্রীদের। একই পরিস্থিতি হতে পারে আজও। কারণ আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী আজও রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা থাকছে।

[হাবড়ার সভায় পুলিশকে হুঁশিয়ারি দিলীপ ঘোষের, পালটা চ্যালেঞ্জ পার্থর]

দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, দুই দিনাজপুর, মালদহ-সহ উত্তরবঙ্গের সবক’টি জেলাতেই ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। অন্যদিকে, দক্ষিণের জেলাগুলির মধ্য মূলত বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া, দুই বর্ধমান এবং দুই ২৪ পরগনায় হালকা বৃষ্টিপাত হতে পারে। হাওড়া, হুগলি, বাঁকুড়া, পুরুলিয়াতেও অল্পসল্প বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা হয়েছে। তবে, শনিবার গত কয়েক দিনের তুলনায় তাপমাত্রা খানিকটা কম থাকার সম্ভাবনা। গত দু’দিন ধরে বৃষ্টিপাত হলেও বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকায় অস্বস্তির পরিমাণ ছিল বেশি। শনিবার সে তুলনায় অস্বস্তির পরিমাণ কিছুটা কমতে পারে।

[দুর্গাপুরে মিলল নিষিদ্ধ প্লাস্টিক বিক্রির দোকানের সন্ধান, বিক্রেতা আটক]

আজ সেভাবে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস না থাকলেও আগামী ৪৮ ঘণ্টায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বাড়তে পারে। বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টিপাত হওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে এবং নদিয়া, মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, ও দুই ২৪ পরগনায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। উত্তরপূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতে ইতিমধ্যেই বর্ষা প্রবেশ করেছে। তাঁর প্রভাব এসে পড়তে পারে এ রাজ্যেও। আগামী ২-১ দিনের মধ্যেই রাজ্যে বর্ষা প্রবেশ করবে বলে মনে করা হচ্ছে আবহাওয়া দপ্তরের তরফে।এরাজ্যের পাশাপাশি গোটা দেশের বিভিন্ন প্রান্তেও গতকাল দিনভর ঝড়-বৃষ্টি হয়েছে। উত্তরপ্রদেশের মোরাদাবাদে ঝড়বৃষ্টিতে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে বলেও খবর।

 

[প্রাপ্য টাকা আটকে রেখেছেন অধ্যক্ষ, অভিযোগে সরব বাগনান কলেজের দুই অধ্যাপক]

এদিকে তাপমাত্রার নিরিখে কিছুটা স্বস্তির খবর শোনাল আবহাওয়া দপ্তর। এবছরের মে মাস গত কয়েক বছরের নিরিখে শীতলতম মে মাস ছিল। গোটা মাসে একবারও তাপমাত্রার পারদ ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরে ওঠেনি। ২০১৪ সালের মে মাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড ছিল ৪১.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতবছর মে মাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪০.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সে তুলনায় এ বছর মে মাসে একদিনও তাপমাত্রা ৩৬ ডিগ্রির উপরে ওঠেনি। আবহাওয়াবিদদের আশা জুন মাসেও তাপমাত্রার এই ট্রেন্ড বজায় থাকবে, সেক্ষেত্রে অনেকটাই কমতে পারে অস্বস্তির পরিমাণ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে