২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুব্রত বিশ্বাস: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বাবুল সুপ্রিয়র দেখানো পথে এবার হাঁটলেন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। কালিয়াগঞ্জের উপনির্বাচন নিয়ে তিনি গান লিখলেন। রাতারাতি সেই গানে সুরও দিলেন। এরপর বিনা তালিমে গানটি রেকর্ডও করালেন কালিয়াগঞ্জের লোকশিল্পী মৈনাক পালোধিকে দিয়ে। ভোটদাতাদের আগ্রহ বাড়াতে উন্নয়নকে হাতিয়ার করেই গান রচনা। তবে গীতিকার হিসাবেও নিজের নামটি গানে সুনিপুণ দক্ষতার সঙ্গে যোগ করেছেন। মাদলের দ্রিমিদ্রিমি তালে ও অনন্য যন্ত্র সহযোগে রবিবার গানটি রেকর্ড করা হয়। যা রবিবার রাত থেকেই প্রচারের ক্ষেত্রে ব্যবহার করে মাইকে বাজানো শুরু হয়েছে।

রাজীবের কথায়, “কালিয়াগঞ্জের সাংস্কৃতিক চর্চা মুগ্ধ করেছে। একটি রাজবংশী এলাকায় তাঁদের সংস্কৃতিচর্চা দেখে মুগ্ধ হয়ে জীবনে প্রথম গান লেখার ইচ্ছা জাগে। শনিবার কালিয়াগঞ্জে নির্বাচনী প্রচারে বেরিয়ে এক নিরালা জায়াগায় কিছুক্ষণ একা বসে গানটা লিখে ফেলি। এরপর মৈনাক পালোধি স্থানীয় লোকশিল্পী ও গায়কের সঙ্গে সেই রাতেই কথা হয়। রবিবার প্রচারের ভিতরেই তালিম ছাড়া সুরের আঙ্গিক নিয়ে তাঁর সঙ্গে সামান্য আলোচনাও করি। সঙ্গে সঙ্গে তা রেকর্ড করা হয়। যা রাতেই প্রচারের কাজে লাগানো হয়।” অডিও হিসাবে এক-দু’দিন চলার পরই তা ভিডিও রূপে ধরা পড়বে বলে জানান তিনি। 

[আরও পড়ুন: ‘ধর্ষণের জবাব ধর্ষণেই’, লাইভ অনুষ্ঠানে প্রাক্তন সেনাপ্রধানের মন্তব্য ঘিরে নিন্দার ঝড়]

সেচমন্ত্রী, তফশিলি জাতি-উপজাতি উন্নয়নমন্ত্রীর পর এবার তাঁকে বনমন্ত্রী হিসাবেও বাড়তি দায়িত্ব পালন করতে হবে। মন্ত্রিসভা সামলে তিনি গানকেও কণ্ঠস্থ করেছেন। মঞ্চে গানও করেছেন। গায়কি দক্ষতার পর এবার গান লেখার কাজটিও করে ফেললেন চুপিসারে। তাঁর লেখা কয়েকটি কবিতায় সুর দেবেন রাজীব। সুপ্ত প্রতিভাকে প্রকট করতে এবার তৎপর হবে বলেও জানিয়েছেন মন্ত্রী।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং