BREAKING NEWS

১৫ ফাল্গুন  ১৪২৭  সোমবার ১ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

একুশের নির্বাচনে বড় চমক, নন্দীগ্রাম থেকে ভোটে লড়ার ঘোষণা মমতার

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: January 18, 2021 1:53 pm|    Updated: January 18, 2021 5:05 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একুশের নির্বাচনের আগে বড় চমক। শুভেন্দুর গড় নন্দীগ্রাম (Nandigram) থেকে ভোটে লড়ার কথা ঘোষণা করে দিলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। জানিয়ে দিলেন, নন্দীগ্রামের সঙ্গে তাঁর আত্মার টান। তাই নিজের উত্থানস্থল থেকেই একুশের লড়াইয়ে অবতীর্ণ হতে চান তিনি। 

শুভেন্দুর (Suvendu Adhikari) বিজেপিতে যোগদানের পর এই প্রথমবার নন্দীগ্রামে জনসভা করলেন মমতা। আর প্রথম সভাতেই রীতিমতো জনজোয়ার চোখে পড়ল। সেই জনজোয়ারকে সাক্ষী রেখেই তৃণমূল সুপ্রিমো ঘোষণা করলেন, “এবারে নন্দীগ্রামে এমন কাউকে প্রার্থী করব ভাবছি যে আপনাদের কাছে পড়ে থেকে আপনাদের কাজ করবে। ভাল কাউকেই প্রার্থী করব। ভাবছিলাম, আমি নিজেই যদি দাঁড়াই তাহলে কেমন হয়? একটু গ্রামের জায়গা, আমার মনের জায়গা, আমি হয়তো ভোটের আগে বেশি আসতে পারব না। আমাকে ২৯৪ আসনেই লড়তে হবে। আপনারাই সব করে দেবেন। ভোটের পরে যা করার আমি করব। নন্দীগ্রামের সঙ্গে আমার আত্মার টান। নিজের বিবেক থেকেই বলছি। নন্দীগ্রাম আমার জন্য লাকি। এখান থেকেই লড়ব, এবং সবক’টি আসনে তৃণমূল কংগ্রেস (TMC) জিতবে।”

[আরও পড়ুন: নন্দীগ্রামে মমতার সভায় ‘শহিদ’ পরিবারের সদস্যরা, নিখোঁজদের পরিবারকে ৪ লক্ষ টাকা করে অনুদান]

এরপরই স্পষ্ট করে মমতা জানিয়ে দেন,”আমি আমার দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সিকে (Subrata Baksi) বলব নন্দীগ্রাম থেকে প্রার্থী হিসেবে যেন আমার নামটা রাখা হয়। আমি নন্দীগ্রামের মানুষের মধ্যে থেকে আপনাদের জন্য কাজ করতে চাই।” উপস্থিত জনতার উদ্দেশে একাত্মতার বার্তা দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন,”এমন দল কোথাও দেখেছেন? আমি ভালবাসার টানে আর নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখতে পারলাম না।”

[আরও পড়ুন: তৃণমূলের ‘গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে’ রণক্ষেত্র ক্যানিং, গুলি-বোমায় আহত পুলিশকর্মী-সহ বেশ কয়েকজন]

তবে, নন্দীগ্রামে ভোটে দাঁড়ালেও ভবানীপুর কেন্দ্রও ছাড়ছেন না মুখ্যমন্ত্রী। তেখালির সভা থেকে তিনি জানিয়ে দিয়েছেন,”পারলে দুটো আসনেই লড়ব। ভবানীপুর আমার বড় বোন হলে, নন্দীগ্রাম আমার মেজোবোন। আমি সুব্রত বক্সিকে অনুরোধ করব, দুটো জায়গাতেই আমার নামটা দিয়ে দিও।” মমতার সেই প্রস্তাবে সম্মতিও দিয়েছেন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি। 

রাজনৈতিক মহলের ধারণা, একুশের আগে মমতার এই ঘোষণা মাস্টারস্ট্রোক হতে পারে। কারণ, তিনি নিজে নন্দীগ্রামে প্রার্থী হওয়ার অর্থ, শুভেন্দু অধিকারীকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ জানানো। এবং নিজের জেলাতেই শুভেন্দুকে কোণঠাসা করার চেষ্টা। তাছাড়া, লোকসভায় জঙ্গলমহল এলাকায় বিজেপি ভাল ফল করেছিল। মমতা মেদিনীপুরে নির্বাচনে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়ে জঙ্গলমহল এবং আশেপাশের জেলাগুলির বাসিন্দাদের কাছে থাকার বার্তাও দিয়ে দিলেন। সেই সঙ্গে মমতার নামের সঙ্গে যে নন্দীগ্রামের আবেগের বিষয়টি জড়িয়ে, সেটাও কাজে লাগাতে চাইছেন তৃণমূলনেত্রী। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement