৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সপ্তাহের শেষেই নামবে পারদ, খুশির খবর আবহাওয়া দপ্তরের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 13, 2017 4:15 am|    Updated: September 19, 2019 5:06 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিন তিনেক বৃষ্টি হওয়ায় পারদ অনেকটাই নেমেছিল এ বঙ্গের। কিন্তু ব্যাকফুটেই ছিল শীত। আবার মেঘ কাটায় নেমেছে পারদ। তবে চলতি সপ্তাহে শীতের দেখা মিলবে না বলেই জানাচ্ছে হাওয়া অফিস। তাদের তরফে খবর, শীত আসতে এখনও আগামী সপ্তাহ। অর্থাৎ বড়দিনের আগেই শীত জাঁকিয়ে বসবে। আর এ খবরেই উচ্ছ্বসিত বঙ্গবাসী।

[ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের আড়ালে নিষিদ্ধ ড্রাগস পাচার, সল্টলেকে মাদকচক্রের পর্দাফাঁস]

কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দপ্তরের উপ-মহানির্দেশক সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় মঙ্গলবার জানান, আপাতত তাপমাত্রা খুব একটা কমবে না। বড়জোর এক-দু ডিগ্রি। সপ্তাহান্তে হুড়মুড় করে নামতে শুরু করবে পারদ। কিন্তু কেন শীতের জন্য এখনও প্রায় একটা সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হবে? মৌসম ভবনের তরফে জানা যাচ্ছে, নতুন একটি পশ্চিমি ঝঞ্ঝা কাশ্মীরে ঢুকে পড়েছে। যার প্রভাবে নতুন করে তুষারপাত হবে পশ্চিম হিমালয়ে। ফলে উত্তর ভারতের তাপমাত্রা নামতে শুরু করবে। মেঘের আনাগোনা কমলে সেই হাওয়া ঢুকতে পারবে পূর্ব ভারতে। আর তাতেই নামবে পারদ। ঝঞ্ঝা যখন ঢোকে তার আগে ও পরে জলীয় বাষ্পের আনাগোনা লেগে থাকে। ঝঞ্ঝা শক্তিশালী হলে তার প্রভাবে রাজস্থান-হরিয়ানার উপর একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়। যা ক্রমশ পূর্ব দিকে এগোতে থাকে। আর এই ঝঞ্ঝা না সরা পর্যন্ত হিমেল হাওয়া প্রবেশ করতে পারে না। তাই আবহাওয়াবিদরা জানাচ্ছেন, বুধবার নাগাদ উত্তর ভারতে থাবা বসাতে পারে শৈত্যপ্রবাহ। যার প্রভাব দেশের পূর্বভাগে পড়তে এখনও সময় নেবে দিন তিনেক। আর ঝঞ্ঝা পুরোপুরি কেটে শীত জোড়ালো হতে প্রায় দিন সাতেক সময় লাগবেই।

[ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে লাগাতার যৌন হেনস্তা, গ্রেপ্তার প্রধানশিক্ষক]

গত ২২ নভেম্বর শহরের তাপমাত্রা এক ধাক্কায় পাঁচ ডিগ্রি নেমে গিয়েছিল। তবে বৃষ্টি থামলে ফের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। এদিন শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৮.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে দু’ডিগ্রি বেশি এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৯.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের চেয়ে পাঁচ ডিগ্রি বেশি। এদিন সকালে ডায়মন্ড হারবার ঢেকে গিয়েছিল গভীর কুয়াশায়। ফলে বাতিল হয়ে যায় চারটি লঞ্চ। আর তাই জলপথে যাতায়াতে বেশ সমস্যায় পড়তে হয় নিত্যযাত্রীদের। তবে সান্ত্বনা একটাই। আগামী সপ্তাহ থেকেই শীতে কাঁপবে শহরবাসী।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement