৭ মাঘ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২১ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রঞ্জন মহাপাত্র, কাঁথি: বিশ্বাসের খেসারত দিতে হল বছর পঞ্চাশের মহিলা পর্যটককে। দিঘায় ঘুরতে এসে ভয়ংকর অভিজ্ঞতার শিকার হলেন তিনি। সাহায্যের নাম করে হোটেলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করা হল তাঁকে। এক যুবকের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ তুলেছেন ওই মহিলা।

জানা গিয়েছে, নির্যাতিতা মালদহের ইংলিশ বাজারের বাসিন্দা। দিন কয়েক আগে তিনি একাই দিঘায় ঘুরতে এসেছিলেন। রবিবারই সেখান থেকে ফেরার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু স্টেশনে পৌঁছে ট্রেন মিস করেন তিনি। অগত্যা স্টেশনে বসেই সময় কাটানোর সিদ্ধান্ত নেন। ঠিক সেই সময় আকাশ নামে বছর তিরিশের যুবক এসে মহিলার সঙ্গে আলাপ জমায়। নিজেকে হোটেল মালিক বলে পরিচয় দেয়। বিশ্বাস অর্জনের জন্য মহিলাকে মাসি বলে সম্বোধন করে সে। বলে, রাতে এভাবে স্টেশনে না থেকে তিনি যেন যুবকের সঙ্গে হোটেলে যান। যুবকের উপর বিশ্বাস করে তার সঙ্গেই স্টেশন থেকে হোটেলের উদ্দেশে রওনা দেন মহিলা। ওড়িশার একটি বেসরকারি হোটেলে মহিলাকে নিয়ে যায় যুবক। একসঙ্গেই হোটেলের একটি ঘরে প্রবেশ করেন তাঁরা।

[আরও পড়ুন: ‘দায়িত্বজ্ঞানহীনের মতো মন্তব্য’, বিতর্কের মাঝে দিলীপকে তোপ বাবুলের]

অভিযোগ, চায়ের সঙ্গে মাদক মিশিয়ে সেখানেই মহিলাকে ধর্ষণ করে ওই যুবক। এরপর মহিলার ব্যাগ থেকে নগদ ৫০০০ টাকা এবং ১৮,০০০ টাকার মোবাইল নিয়ে সেখান থেকে ভোররাতে চম্পট দেয় অভিযুক্ত। ব্যাগে গুরুত্বপূর্ণ কিছু নথিও ছিল। সেগুলিও নিয়ে যায় যুবক বলে জানিয়েছেন নির্যাতিতা। চায়ের সঙ্গে মাদক মিশিয়ে দেওয়ায় সেই সময় তাঁর জ্ঞান ছিল না। সকালে উঠে গোটা ঘটনা বুঝতে পারেন মহিলা। সর্বস্ব খুইয়ে এরপর তিনি তালসারি মেরিন থানায় যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। খবর দেওয়া হয়েছে দিঘা থানাতেও। অভিযুক্তর খোঁজে চলছে তল্লাশি। গোটা ঘটনায় এখনও ট্রমার মধ্যে রয়েছেন নির্যাতিতা। ঘুরতে এসে এমন ভয়ংকর অভিজ্ঞতা হবে, ভাবতেও পারেননি তিনি।

[আরও পড়ুন: নৈহাটির বাজি কারখানায় বিস্ফোরণে গ্রেপ্তার আরও ১, প্রকাশ্যে চাঞ্চল্যকর তথ্য]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং