১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রবিনসন স্ট্রিট কাণ্ডের ছায়া বাঁকুড়ায়, মেয়ের পচাগলা দেহ আগলে বসে রইলেন মা!

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: September 9, 2021 9:10 pm|    Updated: September 9, 2021 9:10 pm

Woman stays with her daughter's body in Bankura | Sangbad Pratidin

টিটুন মল্লিক, বাঁকুড়া: রবিনসন স্ট্রিট কাণ্ডের ছায়া এবার বাঁকুড়ায় (Bankura)। বিশেষ ক্ষমতা সম্পন্ন মেয়ের দেহ আগলে বসে রইলেন মা। দুর্গন্ধ বেরনোয় পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, প্রায় চারদিন আগে মৃত্যু হয়েছে ওই যুবতীর।

জানা গিয়েছে, মৃতার নাম কৃষ্ণা বন্দ্যোপাধ্যায়। বহু বছর আগে হরিদ্বার থেকে বাঁকুড়ার লালবাজারের কুচকুচিয়া এলাকায় আসেন তিনি। বাবা ও মা উষা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে থাকতেন কৃষ্ণা। বহুদিন ধরেই মানসিক সমস্যা ছিল তাঁর। বাবার মৃত্যুর পর ওই যুবতীর অবস্থার অবনতি হতে থাকে। মাঝে মধ্যেই মাকে না জানিয়েই বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতেন কৃষ্ণা। মা গিয়ে তাঁকে খুঁজে আনতেন। মা-মেয়ের মধ্যে মাঝে মধ্যে বচসাও হত।

[আরও পড়ুন: Durga Puja 2021: বেদখল মন্দিরের জমি, ঘাটালের দুর্গারূপী মা সিংহবাহিনীর পুজো নিয়ে অনিশ্চয়তা]

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, কয়েকদিন ধরে বাড়ি থেকে বের হননি উষাদেবী। তাঁদের কথা বার্তাও শোনেননি কেউ। এতে সকলেরই মনে দানা বেঁধেছিল সন্দেহ। বৃহস্পতিবার সকালে ওই বাড়ি থেকে দুর্গন্ধ পান প্রতিবেশীরা। এরপরই খবর দেওয়া হয় পুলিশে। দেখা যায়, ঘরের মধ্যে দেখা যায় মেয়ের পচাগলা দেহ আগলে বসে রয়েছেন উষাদেবী। ইতিমধ্যেই দেহটি (Body) উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ।

কেন মেয়ের মৃত্যু সংবাদ কাউকে জানাননি উষা দেবী? তাঁর দাবি মেয়ের সামান্য অসুখ। চিকিৎসকের কাছে গেলেই সুস্থ হয়ে যাবে। অর্থাৎ মেয়ের মৃত তা মানতেই রাজি নন উষাদেবী। তবে দীর্ঘদিন ধরে বাপের বাড়ির সঙ্গে সম্পর্ক সুমধুর না হওয়ায় তাঁদেরও কিছু জানাননি উষা দেবী।

[আরও পড়ুন: Coronavirus Update: গত ২৪ ঘণ্টায় নিম্নমুখী রাজ্যের কোভিড গ্রাফ, মৃত্যু ৮ জনের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে